সবজির বাজারে আগুন

রাজধানীর সবজির বাজারে যেন আগুন লেগেছে। রাজধানীর খুচরা বাজারে ৬০ টাকার কমে প্রায় কোনো সবজি’ই নেই। সর্বোচ্চ ১৬০ টাকা কেজিতেও বেশকিছু সবজিকে বিক্রি হতে দেখা গেছে। গত সপ্তাহের তুলনায় এবার প্রায় প্রতিটি সবজি কেজিতে ৫/১০ টাকা বেড়েছে বলে ক্রেতা-বিক্রেতারা জানিয়েছেন।

শুক্রবার রাজধানীয় বেশ কয়েকটি কাঁচা বাজার ঘুরে এমন চিত্র পাওয়া যায়। বাজারে নতুন সবজি আসলে দাম কমতে পারে বলে বিক্রেতা জানিয়েছেন।

বিক্রেতাদের দাবি, বাজারে সরবরাহ কম থাকায় সবজির দাম বেড়েছে। পাইকারি বাজারে দাম বেশি বলে খুচরা বাজারে এর প্রভাব পড়েছে।

আর ক্রেতাদের অভিযোগ, বিশেষ কোন সবজির দাম বাড়তে পারে, কিন্তু এক সপ্তাহের ব্যবধানে প্রতিটি সবজির দাম কেজিতে ৫/১০ টাকা বেড়ে যাওয়া কোন স্বাভাবিক বিষয় হতে পারে না। বিক্রেতারা সিন্ডিকেট ব্যবসা করে বলে এভাবে সবজির দাম বাড়ানো হয়।

রাজধানীর মালিবাগ, শান্তিনগর, রামপুরা, মোহাম্মদপুরের টাউন হলসহ বেশ কিছু কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা যায়, সাধারণত ৬০ টাকার কমে কোন সবজি নেই। তবে বাজার ভেদে দামের কিছুটা তারতম্য দেখা গেছে।

প্রতি কেজি বেগুন ৮০ টাকা (লম্বা) ও ৬০ টাকা (গোল), মূলা ৫৫ থেকে ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। বরবটি ৭৫ থেকে ৮০ টাকা, ধুন্দল ৬০ থেকে ৬৫ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে।

প্রতি কেজি কাঁকরোল ৭০/৮০ টাকা, করলা ৬০ থেকে ৭০ টাকা, টমেটো ১০০ থেকে ১২০ টাকা, শিম ১৬০ টাকা, গাজর ৬০ টাকা, চিচিঙ্গা ৬০ থেকে ৬৫ টাকা, ঝিঙ্গা ৬০ থেকে ৬৫ টাকা, পটল ৫৫ থেকে ৬০ টাকা, ফুলকপি আকার ভেদে প্রতিটি ৫০/৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া প্রতিটি কচু ৫০ থেকে ৫৫ টাকা, কচুরলতি ৫০ থেকে ৬০ টাকা, কচুমুখী ৫০ থেকে ৬০ টাকা, কাঁচাকলা প্রতিহালি ৪০ থেকে ৪৫ টাকা, পেপে ৩০/৪০ টাকা, প্রতিকেজি কাঁচা মরিচ ১৬০ টাকা, লাউ আকার ভেদে প্রতিটি ৬০ থেকে ৭০ টাকা, জালি কুমড়া প্রতিটি ৫০ থেকে ৬০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ৬০ থেকে ৭০ টাকা, প্রতিকেজি আলু ২৬ থেকে ৩০ টাকা, শসা ৬০ থেকে ৭০ টাকা, ঢেঁড়শ ৬০ থেকে ৬৫ টাকা, প্রতিহালি লেবু ৩০ থেকে ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

বিভিন্ন বাজার ও পণ্যের মানভেদে এসব পণ্যের দাম প্রতি কেজিতে ৫ থেকে ১০ টাকা পার্থক্য লক্ষ্য করা যায়।

মালিবাগের কাঁচা বাজারের ব্যবসায়ী রাশেদুল জানান, সবজির দাম গত সপ্তাহের তুলনায় কিছুটা বেড়েছে। বাজারে নতুন সবজি আসা শুরু হলে দাম কমতে পারে বলে মনে করেন তিনি।

শান্তিনগর বাজারের সবজি বিক্রেতা আব্দুর রশিদ হামিদ বলেন, পাইকারি বাজারে সবজির স্বল্পতা আছে, যে কারণে দাম কিছুটা বেড়ে গেছে। প্রায় প্রতিটি সবজি কেজিতে ৫/১০ টাকা বেড়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

রামপুরা বাজারে সবজি কিনতে যাওয়া স্থানীয় বাসিন্দা আনোয়ার হোসেন মিয়াজী বলেন, সবজি দাম কমে না, কখনও ২/৪ টাকা কমলেও পরবর্তী সপ্তাহে ৫/৭ টাকা বেড়ে যায়, এসব তো স্বাভাবিক না। প্রশাসন থেকে যদি বাজার নিয়মিত মনিটরিং করা হতো তাহলে কিছুটা স্থিতিশীলতা বজায় থাকতো।