ঘরেই বানিয়ে ফেলুন সুস্বাদু চিকেন-তেহারি

জিভে জল আনা অত্যন্ত লোভনীয় চেহারার তেহারিটা দেখেই কি পারফেক্ট মনে হচ্ছে না? একেকজন একেকভাবে তেহারি রান্না করেন। তবে হ্যাঁ, অনেকেরই তেহারিতে পারফেক্ট স্বাদটা আসে না। অনেকে আবার অনুসরণ করেন খুবই জটিল রেসিপি। চলুন, আজ জেনে নি আপনার মনের মত পারফেক্ট স্বাদের তেহারি রান্না করার একটি দারুণ সহজ রেসিপি। একদম নতুন রাঁধুনিদেরও এই রেসিপি দেখে রাঁধলে খাবারটি হবে দারুণ সুস্বাদু। নিচের নিয়ম মেনে ঘরেই বানিয়ে ফেলুন সুস্বাদু চিকেন-তেহারি!

১ কেজি মুরগি, বড় বড় করে কেটে নেওয়া। ১০টি ছোট আলু। ৩ টেবিল-চামচ আদা ও রসুন বাটা। ২টি বড় পেঁয়াজ। আধা চা-চামচ মরিচগুঁড়া। আধা চা-চামচ ধনেগুঁড়া। স্বাদ মতো লবণ। আধা কাপ তেল। ৩ টেবিল-চামচ সরিষার তেল। আস্ত ৩টি এলাচ। ২ টুকরা দারুচিনি। ২টি তেজপাতা।

স্পেশাল গরম মসলা: ৪টি এলাচ। আধা চা-চামচ জায়ফল এবং জয়ত্রী। আধা চা-চামচ জিরা। আধা চা-চামচ ধনিয়া। ৭,৮টি গোলমরিচ। ৩টি লবঙ্গ। আধা চা-চামচ মৌরি। আধা চা-চামচ শাহিজিরা। একসঙ্গে গুঁড়া করে নিন। এটাই স্পেশাল গরম মসলা।

চালের জন্য উপকরণ: ৪ কাপ পোলাওয়ের চাল (কালিজিরা)। ৬ কাপ এবং আরও আধা কাপ গরম পানি। ১টি বড় পেঁয়াজকুচি। ১ টেবিল-চামচ আদাবাটা। আধা কাপ তেল। ৩ টেবিল-চামচ ঘি। ৩টি এলাচ। এক টুকরা দারুচিনি। ২টি তেজপাতা। স্বাদ মতো লবণ। ২০,২৫টি আস্ত কাঁচামরিচ।

পদ্ধতি: প্রথমেই মুরগি রান্না করে নিতে হবে।

পেঁয়াজ, রসুন, আদা একসঙ্গে বেটে নিন। আলু বাদে মুরগির জন্য রাখা বাকি সব উপকরণ দিয়ে মুরগি মাখিয়ে নিন। এবার ভালো মতো কষিয়ে মুরগি রান্না করুন। পানি দেবেন না।

মাংস সিদ্ধ হয়ে আসলে আলু দিন। সামান্য পানি দিয়ে ঢেকে রান্না করুন। আলু আধা সিদ্ধ হলে অল্প ঝোল রেখে চুলা বন্ধ করে দিন।

এবার আলাদা বড় হাঁড়িতে তেল ও ঘি দিয়ে পেঁয়াজ ভাজতে থাকুন। আস্ত গরম মসলাগুলো দিয়ে দিন। পেঁয়াজ হালকা বাদামি হয়ে আসলে আদাবাটা দিন।

একটু ভেজে চাল দিয়ে কষাতে থাকুন। চাল ঝরঝরে হয়ে আসলে, ঝোলসহ মুরগি দিয়ে চালের সঙ্গে মিশিয়ে গরম পানি দিয়ে চুলার আঁচ একদম কমিয়ে ঢেকে দিন।

চাল ফুটে উঠলে আস্ত কাঁচামরিচ মিশিয়ে হাঁড়ির মুখ শক্ত ভাবে ঢেকে অনেকক্ষণ খুব অল্প আঁচে দমে রাখুন। চাল একদম ফুটে গেলে চুলা বন্ধ করে দিন। এবার নামিয়ে গরম তেহারি, সালাদের সঙ্গে পরিবেশন করুন।