লজ্জা : ৯০ ডলারের ভাড়া দেখানো হলো ১৬০ ডলার‍!

ঢাকায় আগামী বছর অনুষ্ঠেয় ইন্টার-পার্লামেন্টারি ইউনিয়নের (আইপিইউ) ১৩৬তম সম্মেলনে সরকারের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দেওয়া হচ্ছে। এ ব্যাপারে সরকারের প্রস্তুতির বিষয়টি ২৩ অক্টোবর থেকে জেনেভায় অনুষ্ঠেয় আইপিইউর ১৩৫তম সম্মেলনে লিখিতভাবে উপস্থাপন করা হবে।
জাতীয় সংসদ সচিবালয় থেকে সোমবার এই তথ্য পাওয়া গেছে। আগামী বছরের ১ থেকে ৫ এপ্রিল আইপিইউর ১৩৬তম সম্মেলন ঢাকায় হওয়ার কথা রয়েছে। গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলার পরিপ্রেক্ষিতে এই সম্মেলনে অতিথিদের নিরাপত্তা বিষয়ে কী ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে, সে বিষয়ে জানতে চেয়ে আইপিইউ সংসদ সচিবালয়কে চিঠি দিয়েছে।

গত ১ জুলাই হলি আর্টিজানে জঙ্গিরা ১৮ জন বিদেশিসহ ২০ জনকে হত্যা করে। এ ঘটনায় ঢাকায় কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি অ্যাসোসিয়েশনের (সিপিএ) সম্মেলন বাতিল করা হয়। গত ১ থেকে ১০ সেপ্টেম্বর এই সম্মেলন হওয়ার কথা ছিল।
জানতে চাইলে আইপিইউর প্রেসিডেন্ট সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, জঙ্গি তৎপরতা বৃদ্ধির কারণে সিপিএ সম্মেলন বাতিল করা হয়েছিল। যে কারণে আইপিইউ সম্মেলনে নিরাপত্তা কেমন থাকবে, সে বিষয়ে সংস্থাটির পক্ষ থেকে জানতে চাওয়া হয়েছে। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ইতিমধ্যে সাফল্যের সঙ্গে জঙ্গিদের দমন করা হয়েছে। পরিস্থিতির যথেষ্ট উন্নতি হয়েছে। আগামী ছয় মাসের মধ্যে আরও উন্নত হবে। সুতরাং, অতিথিদের নিরাপত্তা নিয়ে কোনো সমস্যা থাকবে না।

সংসদ সচিবালয় সূত্র বলেছে, ২৩ থেকে ২৭ অক্টোবর সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় ১৩৫তম আইপিইউ সম্মেলন হবে। এই সম্মেলনে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের ২২ সদস্যের প্রতিনিধিদল অংশ নেবে। সেখানে সরকারের এই বার্তা এবং সম্মেলনের প্রস্তুতি সম্পর্কে সরকারের বক্তব্য উপস্থাপন করা হবে। আইপিইউ সম্মেলনের নিরাপত্তার বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের উপস্থিতিতে গত বৃহস্পতিবার সংসদ ভবনে সভা হয়। সভায় মন্ত্রণালয় থেকে সম্মেলনে সর্বোচ্চ নিরাপত্তার আশ্বাস দেওয়া হয়।

এক উপকমিটির এক সদস্য বাদ: আইপিইউ সম্মেলনকে সফল করতে সংসদ সচিবালয়ের সচিব আবদুর রব হাওলাদারের নেতৃত্বে একটি সাংগঠনিক এবং ২৪টি উপকমিটি গঠন করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আইপিইউ সম্মেলন উদ্বোধন করবেন। সম্মেলনে ১৭০টি দেশের ৫৫ জন স্পিকারসহ তিন হাজারের বেশি সাংসদের অংশ নেওয়ার কথা। বিভিন্ন দেশের আইনসভার কর্মকর্তাদের নিয়ে সম্মেলনে তিন হাজারের বেশি লোক অংশ নেবেন। রাজধানীর ২৭টি হোটেলে অতিথিদের রাখা হবে।
সংসদ সচিবালয় সূত্র জানায়, সম্মেলনের আবাসন উপকমিটি থেকে হোটেল লা ভিঞ্চির ভাড়া ১৬০ ডলার প্রস্তাব করে আইপিইউর সদর দপ্তরে পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু আইপিইউ কর্তৃপক্ষ অনলাইনে পরীক্ষা করে জানতে পারে, লা ভিঞ্চির ভাড়া ৯০ ডলার। বিষয়টি তারা সংসদ সচিবালয়কে জানালে এ নিয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।
এ ঘটনায় আলী আশরাফ নামের এক কর্মকর্তাকে আবাসন উপকমিটির সদস্যপদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে এবং আর্থিক স্বচ্ছতার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হিসাব ও নিরীক্ষা নামের একটি নতুন উপকমিটি গঠন করা হয়েছে।
এ বিষয়ে জানতে সংসদ সচিবালয়ের সচিব আবদুর রব হাওলাদারকে ফোন করে পাওয়া যায়নি।