পূজার লাড্ডু-নাড়ু

আমাদের দেশের এবং দেশের বাইরের বাঙালিদের কাছে দেশীয় মিষ্টি খাবার খুবই প্রিয়। দেখতে দেখতে পূজাও এসে গেল। আসুন কয়েকটি নাড়ু আর লাড্ডুর রেসিপি জেনে নিই:

বেসনের লাড্ডু

লাড্ডু তৈরির উপকরণ
বেসন-১ কাপ, পানি ১/২ কাপ, ভাজার জন্য তেল, কাঠ বাদাম ১ চা চামচ, এলাচ গুঁড়া সামান্য, তেল।

সিরা তৈরিতে
চিনি দেড় কাপ, পানি ১ কাপ।
যেভাবে করবেন

প্রথমে পানিতে চিনি জ্বাল দিয়ে সিরা তৈরি করে নিন।

এবার একটি পাত্রে পানি ও বেসন দিয়ে খুব ভালো করে মিশ্রণ তৈরি করুন। বড় হাতলসহ ঝাজরা চামচে মিশ্রণ নিয়ে গরম তেলে ছাড়ুন। অল্প আচে বুন্দিয়াগুলো সোনালী রঙ করে ভেজে তুলুন।

সবশেষে চিনির সিরায় বুন্দিয়া, বাদাম কুচি এবং এলাচ দিয়ে মেখে ১০ মিনিট রেখে দিন।

হাতে চিনির সিরা মেখে গোল গোল করে লাড্ডু তৈরি করুন।

তিলের লাড্ডু
তিলের লাড্ডু তৈরি করতে প্রয়োজন হবে
তিল- ২৫০ গ্রাম, গুড়-২৫০ গ্রাম, ঘি- ১ কাপ।

প্রণালী
তিল টেলে(তেল ছাড়া ভাজা) নিয়ে পরিষ্কার করে খোসা ছাড়িয়ে নিন।
এবার চুলায় একটি পাত্রে গুড় জ্বাল দিন। গুড় গলে গেলে তিল দিয়ে নাড়তে থাকুন। গুড়ের সঙ্গে তিল মিলে শক্ত হয়ে এলে নামিয়ে নিন। একটি পাত্রে তিলের মিশ্রণ ঢেলে গরম থাকতেই ঘি দিয়ে মিশিয়ে নিন।
পছন্দ মতো আকারে লাড্ডু তৈরি করুন।
আপনারা চাইলে সব ধরনের লাড্ডুতে পছন্দ মতো লবণ দিতে পারেন।

নারকেলের নাড়ু
উপকরণ
নারকেল ৪টি, গুড় ‍অথবা চিনি ১কেজি, এলাচ গুঁড়া সামান্য, তেজপাত ১টি, এক চিমটি লবণ, দারচিনি টুকরো কয়েকটি।

প্রণালী
নারিকেল কুরিয়ে নিন।
এবার কোরানো নারিকেল ও গুড় ভালো করে মিশিয়ে পাত্রে দিন।

দারচিনি, তেজপাতা, এলাচ গুঁড়া ও লবণ দিয়ে দিন।

এরপর সারাক্ষণ নাড়ুন যাতে তলায় লেগে না যায়। হালকা আছে প্রায় ‍আধাঘণ্টা রান্নার পরে নরম ও আঠালো হয়ে এলে চুলা থেকে নামিয়ে নিন।

হলাকা গরম থাকতেই হাতের তালুতে অল্প ঘি মেখে নারিকেল নিয়ে ছোট বলের মতো গোল করে নাড়ু তৈরি করে নিন।