আর্জেন্টিনার দল ঘোষণা, মেসি আছেন!

টানা তিন বছর তিনটি বড় টুর্নামেন্টের ফাইনালে উঠেও কেন শিরোপা জিততে পারেনি আর্জেন্টিনা? প্রশ্নটার সবচেয়ে সংক্ষিপ্ত উত্তর: গঞ্জালো হিগুয়েইন। ফাইনাল হলেই কী যে হয়ে যায় এই স্ট্রাইকারের। আর তাই যতই জুভেন্টাস তাঁকে রেকর্ড দামে কিনুন; আর্জেন্টিনা দলে জায়গা হারালেন হিগুয়েইন। বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব শুরু হচ্ছে আগামী মাসে। তারই দল ঘোষণা করেছেন আর্জেন্টিনার নতুন কোচ এদগার্দো বাউজা। আগের দিন জাতীয় দলে ফেরার ঘোষণা দেওয়া লিওনেল মেসিও আছেন এই দলে।
বাছাই পর্বে আর্জেন্টিনার পরের দুটি ম্যাচ উরুগুয়ে আর ভেনেজুয়েলার সঙ্গে। ১ ও ৬ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠেয় ম্যাচ দুটিই বাউজার প্রথম দুই মিশন। এর আগে অবশ্য আরেক মিশনে সফল তিনি। মেসিকে বুঝিয়ে আবারও জাতীয় দলে ফিরতে রাজি করিয়েছেন। মেসি বলেছেন, এমনিতেই আর্জেন্টিনার ফুটবল নানামুখী সংকটের ভেতর দিয়ে যাচ্ছে। তিনি অবসর নিয়ে সেই সংকট আরও বাড়াতে চান না। দেশের প্রতি ভালোবাসাই আবারও লড়াই করতে উদ্বুদ্ধ করেছে আর্জেন্টিনা অধিনায়ককে। মিশন অসমাপ্ত রেখে যানই বা কীভাবে!

এদিকে কদিন আগে ইতালিয়ান ফুটবল ও স্ট্রাইকারদের সর্বোচ্চ দামের নতুন রেকর্ড গড়ে জুভেন্টাসে যোগ দেওয়া হিগুয়েনকেই ছাড়াই হয়তো ভবিষ্যতের ছক কষছেন বাউজা। টানা তিনটি ফাইনালেই হিগুয়েইন দৃষ্টিকটু মিস করেছেন। যেগুলো ঠিকমতো কাজে লাগাতে পারলে একটি শিরোপার জন্য এমন বুভুক্ষু হাহাকারে পুড়তে হতো না আর্জেন্টিনাকে। যেকোনো টুর্নামেন্টের নক আউট পর্বে হিগুয়েইনের মানসিক চাপ নেওয়ার ক্ষমতা নিয়েও প্রশ্ন আছে। এমন নয় চিরতরে দরজা বন্ধ হয়ে গেল। তবে হিগুয়েইনের বদলে রিভার প্লেটের লুকাস আলারিও আর অ্যাটলেটিকো মিনেইরোর লুকাস প্রাত্তোকে সুযোগ দেওয়া বেশি জরুরি মনে করেছেন বাউজা।

হিগুয়েইনের নতুন ক্লাব সতীর্থ অবশ্য দলে ফিরেছেন। ফিরেছেন অ্যাঙ্গেল কোরেয়াও। মাসচেরানোও আছেন দলে।
আর্জেন্টিনা দল:
গোলরক্ষক: রোমেরো, আন্দুজার, গুজমান।
ডিফেন্ডার: রনকাগলিয়া, মুসাচ্চিও, ফিউনেস মরি, এম্মানুয়েল মাস, মার্কোস রোহো, ডেমিচেলিস, জাবালেতা, মার্কাদো, ওটামেন্ডি।
মিডফিল্ডার: ক্রানেভিতার, মাসচেরানো, বিলিয়া, অগুস্তো ফার্নান্দেজ, বানেগা, পাস্তোরে, লামেলা, গাইতান, ডি মারিয়া।
ফরোয়ার্ড: মেসি, কোরেয়া, প্রাত্তো, আগুয়েরো, ডিবালা, আলারিও।