ঈদ কেনাকাটায় প্রথম চাওয়া পাঞ্জাবি

ঈদ উপলক্ষ্যে অনেকে শার্ট, ফতুয়া বা টি-শার্ট কিনেছেন। কিন্তু ঈদের নামাজে যেতে নতুন পাঞ্জাবি চাই-ই। ক্রেতার চাহিদার কথা বিবেচনায় এনে এবারের ঈদেও পিছিয়ে নেই কোনো ফ্যাশন হাউজ। বেশ কিছু মার্কেটেও ছেলেদের ফ্যাশনকে প্রাধান্য দিতে চলছে বিশেষ কালেকশনের কেনাবেচা। সব বয়সী পুরুষের ঈদ কেনাকাটায় প্রথম চাওয়া থাকে পাঞ্জাবি।

প্রতিবারের মতোই নতুন ডিজাইনের পাঞ্জাবি দেখা যাচ্ছে সব হাউজে। রোদ বৃষ্টির ভাঁজে লুকোচুরি করা দিনের অবসন্নতাকে দূর করতেই যেন রঙিন সব কাপড়ের মেলা বসেছে। লাল, খয়েরি, কমলা, নীল, কালো, সাদা, ছাই, হালকা সবুজ বেগুনি ইত্যাদি রঙের পাঞ্জাবি পাওয়া যাচ্ছে সব মার্কেটে। পাঞ্জাবির সঙ্গে রঙ মিলিয়ে থাকছে ধুতি বা সালোয়ার। কেউ আবার নরম কাপড়ের প্যান্টও বেছে নিচ্ছেন। আধুনিক কাটের এসব পাঞ্জাবির দাম নির্ভর করছে ব্র্যান্ড আর কারুকাজের ওপর।

এবারের ঈদের পাঞ্জাবির কাপড়ের মধ্যে রয়েছে খাদি, মটকা, সুতি, রাজশাহী সিল্ক, আদি মহিশুর সিল্ক, অ্যান্ডি সিল্ক, প্রিন্স সামসী, কুশান, কাসিস, খানশা, শাহজাদা আদি, জয়শ্রী সিল্ক, অ্যান্ডি কটন, ইন্ডিয়ান সিল্ক, জাপানি ইউনিটিকা, তসর, সামু সিল্ক, ধুপিয়ান, ইন্ডিয়ান চিকেনসহ নানা ধরণের কাপড়। দাম পড়বে ৭০০ থেকে শুরু করে ৬ হাজার টাকার মধ্যে।

ব্র্যান্ডধারী পোশাকের শোরুমগুলোর মধ্যে পাবেন কে-ক্র্যাফট, সাদাকালো, অঞ্জন’স, বাংলার মেলা, রঙ, স্বদেশী, দেশি দশ, ওটু, লুবনান, আর্টিস্টি, লা রিভ, ফ্রিল্যান্ড, ইয়েলো, মনসুন রেইন, ক্যাটস আই, স্মার্টেক্স, প্লাস পয়েন্ট, আজিজ সুপার মার্কেটের ফেরীওয়ালা, নিত্যউপহার, তারা মার্কা, আব্রু, স্বপ্নবাজ, মেঠোপথ, লাল-সাদা-নীল, দেশালসহ আরও অনেক দেশি হাউজ। এজন্য আপনি বসুন্ধরা শপিং কমপ্লেক্সে গেলেও পাবেন সব পছন্দের ফ্যাশন হাউজের সমাহার।

ঢাকার অন্যতম বড় পাঞ্জাবির বাজার পীর ইয়ামেনি মার্কেট। এছাড়া রয়েছে নিউ মার্কেট, এলিফ্যান্ট রোড মার্কেট, মালিবাগ, মৌচাক, সদরঘাট, গুলিস্তানসহ অন্যান্য মার্কেটে।