এক রাজীবকে হারিয়ে কোটি রাজীব পেয়েছি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী » Leading News Portal : BartaBangla.com

বার্তাবাংলা ডেস্ক »

Ruhol-haqu20130219024942বার্তাবাংলা ডেস্ক ::তরুণ প্রজন্ম নতুন করে স্বাধীনতা যুদ্ধ শুরু করেছে। এই যুদ্ধের মাধ্যমে তারা নতুন বাংলাদেশ গড়বে।

মঙ্গলবার দুপুরে গণজাগরণে চত্বরে সংহতি জানাতে এসে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী আফম রুহুল হক এ মন্তব্য করেছেন ।

তিনি বলেন, “এক রাজীবকে হারিয়েছি, লাখো কোটি রাজীব ঘরে ঘরে তৈরি হয়েছে। হত্যা করে এ আন্দোলন দমাতে পারবে না। তরুণ প্রজন্ম নতুন করে স্বাধীনতা যুদ্ধ শুরু করেছে। এই যুদ্ধের মাধ্যমে তারা নতুন বাংলাদেশ গড়বে।”

“এক বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিল তারা। এখন বাংলার প্রতিটি ঘরে কোটি কোটি মুজিব জন্ম নিয়েছে”, মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, “রাজীব ও শান্তরা বাংলার সকল মানুষের মাঝে বেঁচে থাকবেন অনন্তকাল।”

এ সময় স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্লোগান দেন। “এক রাজীব লোকান্তরে, লাখো রাজিব ঘরে ঘরে। রাজীব তোমার রক্ত, বৃথা যেতে দেব না।”

তরুণদের মধ্যে যে উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে তা কেউ দমাতে পারবে না কোনো ষড়যন্ত্রেই। যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসি নিশ্চিত করে তবেই থামবো বলেও ঘোষণা দেন তিনি।

এসময় তিনি তরুণদের উদ্দেশ্যে বলেন, “সকল সময়ে চেতনা জাগ্রত রাখতে হবে। যে কোনো ষড়যন্ত্র মোকাবেলায় প্রস্তুত থাকতে হবে। আমরা যুদ্ধাপরাধীমুক্ত বাংলাদেশ গড়বো। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কেউ ঠেকাতে পারবে না।”

মন্ত্রী বলেন, “আমি দেশের বাইরে ছিলাম। যে কারণে আসতে বিলম্ব হয়েছে।”

জামায়াত নেতা কাদের মোল্লাসহ যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে শাহবাগের প্রজন্ম চত্বরের আন্দোলনের সোমবার ১৫তম দিন। এই আন্দোলনের ঢেউ দেশের সীমানা ছাড়িয়ে পৌঁছে গেছে প্রবাসেও। নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ এ দাবির সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করছে। প্রতিদিনই যেনো বাড়ছে এ গণজোয়ারে আসা মানুষের সংখ্যা।

কাদের মোল্লার যাবজ্জীবন সাজার রায় প্রত্যাখ্যান করে গত ৫ ফেব্রুয়ারি বিকেলে শাহবাগ মোড়ে এ বিক্ষোভের সূচনা করে ব্লগার ও অনলাইন অ্যাকটিভিস্ট ফোরাম। এরপর বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা এ গণআন্দোলনে যোগ দেন। গত ৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হয় মহাসমাবেশ। ১৫ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হয় জাগরণ সমাবেশ। উভয় সমাবেশেই যোগ দেয় লাখো জনতা। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত এ লড়াই চলবে বলেও ঘোষণা দিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »