‘বৃটেন সব দলের অংশগ্রহনে অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন দেখতে চায়’ » Leading News Portal : BartaBangla.com

বার্তাবাংলা ডেস্ক »

43190_owaবার্তাবাংলা ডেস্ক ::বৃটিশ পররাষ্ট্র দপ্তরের জ্যেষ্ঠ প্রতিমন্ত্রী ব্যারনেস ওয়ার্সি বাংলাদেশের আগামী নির্বাচন প্রসঙ্গে বলেছেন, বৃটেন সব দলের অংশগ্রহনে অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন আশা করে। ২০০৮ সালের মতো নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে বৃটেন তাতে সব ধরনের সহযোগিতা করবে। তিনি আজ গুলশানে বাংলাদেশস্থ বৃটিশ হাইকমিশনে নতুন ‘প্রাইম টাইম ভিসা সার্ভিস’ এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের পর সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন। বৃটিশ মন্ত্রী কথা বলেন, যুদ্ধাপরাধের চলমান বিচার প্রক্রিয়া ও হরতাল নিয়েও।
যুদ্ধাপরাধের বিচারের বিষয়ে তিনি বলেন, যারা সেই সময়ে অপরাধ করেছে তাদের বিচার হওয়া উচিত যাতে অপরাধীরা মনে না করে যে দায়মুক্তি পেয়ে গেছে। তবে এই বিচারিক প্রক্রিয়াটি স্বচ্ছ এবং উন্মুক্ত হতে হবে। বর্তমানে বিচারিক প্রক্রিয়াটি চলছে। দিনের শেষে যদি এই বিচারের উপর মানুষের বিশ্বাস হারিয়ে যায় তাহলে এটা হবে সবচেয়ে খারাপ উদাহরণ। হরতাল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বৃটেন মনে করে প্রত্যেক মানুষের স্ট্রাইক করার অধিকার আছে। প্রতিবাদ করার অধিকার আছে। একই সঙ্গে প্রত্যেকের অধিকার আছে স্বাভাবিক কর্মকাণ্ড করার। কর্মক্ষেত্রে যাওয়ার। সন্তানকে স্কুলে পাঠানোর। বাংলাদেশের আগামী নির্বাচন প্রসঙ্গে ওয়ার্সি বলেন, বৃটেন বাংলাদেশে সবদলের অংশগ্রহণে অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন দেখতে চায়। বাংলাদেশে ২০০৮ সালের নির্বাচনের মতোই স্বচ্ছ হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। সেক্ষেত্রে অতীতের মতো সব সহযোগিতা অব্যহত থাকবে বলে তিনি উল্লেখ করেন। শান্তিপূর্ণ প্রক্রিয়ায় একটি নির্বাচিত সরকার আরেকটি নির্বাচিত সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করবে এটিই আশা করে বৃটেন।
তিন দিনের সফরে সকালে ঢাকা পৌঁছান বৃটিশ এ মন্ত্রী। সফরকালে ওয়ার্সি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধী দলের নেতা বেগম খালেদা জিয়া ও পররাষ্ট্র মন্ত্রী ডা. দীপু মনির সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। তিনি বাংলাদেশের সঙ্গে যুক্তরাজ্যের অর্থনৈতিক সম্পর্কসহ দ্বিপাক্ষিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করবেন। তার সিলেট সফরের কর্মসূচিও রয়েছে। ২০শে ফেব্রুয়ারি ঢাকা ছাড়ার আগে গণমাধ্যমের সঙ্গে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে মিলিত হবেন তিনি।

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »