বার্তাবাংলা ডেস্ক »

pak-sm1720130217034748বার্তাবাংলা ডেস্ক ::পাকিস্তানে শনিবারের বোমা হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৮৪ হয়েছে ও আহতের সংখ্যা ২০০ ছাড়িয়েছে।
রোববার বেশ কয়েকটি মরহেদ বিস্ফোরণে ধ্বংসস্তুপে নিচ থেকে উদ্ধার করার পর নিহতের সংখ্যার বিষয়টি জানায় কর্মকর্তারা।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, উদ্ধারকর্মীরা এবং নিহতদের স্বজনরা তাদের আপনজনের মরদেহ চিহ্নিত করছে। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

জানা গেছে, শনিবার পাকিস্তানের কোয়েটায় একটি সবজি বাজারে শিয়া সম্প্রদায়ের লোকদের লক্ষ্য করে

গাড়িবোমা হামলা চালানো হয়। ওই গাড়িতে ৮০০ কেজি বিস্ফোরক দ্রব্য ছিল।

হামলার সময় নারী ও শিশুরা হাজারা শহরের ওই বাজারে কেনাকাটা করছিল।

এক শিয়া মুসলিম হায়দার শাঙ্গেজি বলেন, “আরও একটি বিস্ফোরণের ভয়ে ঘটনাস্থলে যেতে ভয় পাচ্ছেন উদ্ধারকর্মী ও স্বেচ্ছাসেবীরা।”

বেলুচিস্তান প্রদেশের গর্ভনর নওয়াব জুলফিকার মাগসি এ হামলার জন্য গোয়েন্দা বাহিনীর ব্যর্থতাকে দায়ী করেছেন।

নিহতদের পরিবারকে এক হাজার মার্কিন ডলার ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন মাগসি।

হামলার ঘটনার প্রতিবাদে কোয়েটায় রোববার ধর্মঘট ডাকা হয়েছে। এদিন নিহতদের স্বরণে বিশেষ শোক পালন করা হয়েছে।

হামলার পর হাজারা সম্প্রদায়ের লোকেরা রাস্তায় নামে। তারা টায়ার জ্বালিয়ে ও পাথর ছুড়ে রাস্তা অবরোধ করে রাখে।

নিষিদ্ধ সুন্নি গোষ্ঠী লস্কর-ই-জাংভি ওই হামলা চালিয়েছে তবে দাবি করেছে।

বেলুচিস্তান প্রদেশের রাজধানী কোয়েটা। শহরটি ইরান ও আফগানিস্তানের সীমান্তবর্তী। স্বাধীনতাকামী বিদ্রোহী ও সম্প্রদায়গত দাঙ্গায় জর্জরিত কোয়েটা। গত কয়েক বছরে কোয়েটায় শিয়া হাজারা সম্প্রদায়ের কয়েক শত লোক প্রাণ হারিয়েছে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »