পুলিশ-জনতা সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ৩০

আসামি গ্রেফতারের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভোলা সদরের রাজাপুরে পুলিশের সঙ্গে জনতার সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে নোমান (২৫) নামে একজন নিহত ও অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে আমিরন (৫২) নামে এক নারী গুলিবিদ্ধ রয়েছেন। এ ঘটনায় দু’জন পুলিশও আহত হয়েছে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ বেশ কয়েক রাউন্ড টিয়ার শেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করেছে।

বৃহস্পতিবার (২৬ মে) রাত ৮টার পর থেকে সাড়ে ৯টা পর্যন্ত ওই ইউনিয়নের জনতা বাজারে পুলিশ-জনতা ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নোমান জনতা বাজার এলাকার বেলাল জামাদারের ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, একটি রাজনৈতিক মামলায় সন্ধ্যার পর রাজাপুর ইউনিয়ন ছাত্রদলের সভাপতি মিজাম উদ্দিনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্থানীয় জনতা বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠে। একপর্যায়ে পুলিশ জনতা-ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এসময় ইট-পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনাও ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে গুলি ছুড়লে নোমান নামে একজন গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায়। এসময় জনতার হামলায় দু’জন পুলিশও আহত হয়। পরে অতিরিক্ত পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

এদিকে, ঘটনার সময় স্থানীয় পুলিশ ক্যাম্পে আগুন ধরিয়ে দেয় স্থানীয় জনতা।

সহকারী পুলিশ সুপার মামুনুর রশিদ জানান, মৃত্যুর বিয়ষটি এখনো নিশ্চিত নই। তবে পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে।