মিথিলা ফারজানা »

Dating App

প্রাচীন কাল থেকেই সৌন্দর্য চর্চা আমাদের জীবন যাপনের সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে। আগের দিনে সৌন্দর্য সচেতন মানুষ প্রাকৃতিক উপাদান দিয়েই রূপচর্চা করতেন। তবে সময় পাল্টেছে, এখন ব্যস্ততার কারণে আমাদের সৌন্দর্য চর্চার জন্য নির্ভর করতে হয়, বাজার থেকে কেনা প্রশাধনীর ওপর। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে ক্যামিক্যালযুক্ত এসব প্রসাধনী দীর্ঘদিন ব্যবহারে ত্বকে বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে। চাইলে ত্বকের যত্নে প্রয়োজনীয় পণ্যগুলো কিন্তু ঘরেই তৈরি করা যায়:

ক্লিনজার

আমরা জানি, ত্বক সুন্দর রাখার প্রথম শর্ত হচ্ছে ত্বক পরিষ্কার রাখা। আর এজন্য চাই ক্লিনজার। আমরা চাইলে কিন্তু ঘরেই খুব অল্প সময়ে তৈরি করতে পারি ক্লিনজার।

দুধ ১ কাপ, ১ টেবিল চামচ ওলিভ ওয়েল, ১ টেবিল চামচ মধু একটি বোতলে নিয়ে খুব ভালো করে ঝেকে নিন। গোলাপ জল, মধু এবং লেবুর রস মিলিয়েও তৈরি করতে পারেন ক্লিনজার।

বাইরে থেকে ফিরে অথবা রান্নার পরে দিনে দুবার এই ক্লিনজার ব্যবহারে আপনার ত্বক পরিষ্কার, সুন্দর আর সতেজ হয়ে উঠবে। সেই সঙ্গে যোগ করবে বাড়তি উজ্জ্বলতা।

ক্লিনজার তৈরি করে ফ্রিজে রেখে ব্যবহার করতে পারেন। তবে ৭ দিনের বেশি এটা ব্যবহার না করে নতুন করে ক্লিনজার তৈরি করে নিন।

স্ক্রাব

দুই টেবিল চামচ কমলার খোসার গুঁড়া এবং দুই টেবিল চামচ মধু একসঙ্গে মিশিয়ে সামান্য পানি দিয়ে ঘন করে পেস্ট তৈরি করে নিন। এর পর মুখে লাগিয়ে এক মিনিট পর হালকা ম্যাসাজ করে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি ত্বকের মরা কোষ দূর করে এবং ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখে।

এছাড়াও একটি কলা চটকে নিয়ে এর মধ্যে চিনি মিশিয়ে নিন। যাদের শুষ্ক ত্বক, তারা চাইলে এর সঙ্গে এক টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে নিতে পারেন। প্যাকটি মুখে লাগিয়ে পাঁচ মিনিট হালকা ম্যাসাজ করুন। এর পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাক ত্বক নরম ও উজ্জ্বল করে।

টোনার

ত্বকের জন্য প্রাকৃতিক টোনারগুলো বেশি কাজে দেয়। ঘরে বসেই তৈরি করে নিতে পারেন আপনার ত্বক উপযোগী টোনার। আধা কাপ গোলাপ জলের সঙ্গে এক চিমটি ফিটকিরি মিশিয়ে রেখে দিন ফ্রিজে। বাইরে থেকে ফিরে মুখ ধুয়ে হালকা ভেজা অবস্থায় তুলার সাহায্যে পুরো মুখে আলতো করে লাগিয়ে নিন। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন।

গোলাপ জলের সঙ্গে এক চামচ শসার রস মিশিয়েও টোনার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

Dating App
শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »