বেড়েছে সোনা-রূপার দাম

আবারও বেড়েছে সোনার দাম; এ নিয়ে চলতি বছরে পাঁচ দফায় প্রতি ভরিতে মোট দাম বাড়ল ৬ হাজার ১২৫ টাকা।

এবার বাড়ছে ভরিতে এক হাজার ২২৫ টাকা। এতে প্রতি ভরি ভালো মানের সোনার দাম দাঁড়ালো ৪৭ হাজার ৪১৫ টাকা। আর প্রতি গ্রামের দাম ৪ হাজার ৬৫ টাকা।

অন্যান্য মানের সোনার দরও বেড়েছে একই হারে। রূপার দর বেড়েছে ভরিতে ৫৮ টাকা।

১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রামে এক ভরি।

শুক্রবার থেকে নতুন দর কার্যকর হবে বলে বুধবার বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির (বাজুস) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

বিশ্ববাজারে দাম বাড়ায় স্থানীয় বাজারে সোনার দাম সমন্বয় করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক খান।

সর্বশেষ গত ৭ মার্চ  সব ধরনের সোনার দামও ভরিতে এক হাজার ২২৫ টাকা করে বাড়ানো হয়।

বর্তমানে প্রতি ভরি ভালো মানের সোনা ৪৬ হাজার ১৮৯ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

ঘন ঘন দাম বাড়ানোর কারণ জানতে চাইলে বাজুস সাধারণ সম্পাদক এনামুল বলেন, “আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ায় স্থানীয় বাজারে তা সমন্বয় করা হচ্ছে। আজ (বুধবার) বাজুসের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যদের সর্বসম্মত মতামতের ভিত্তিতে দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে।”

চলতি বছর এ নিয়ে পঞ্চমবারের মতো বাংলাদেশের বাজারে সোনা-রূপার দাম বাড়ানো হলো।

এর আগে গত বছরের ৫ ডিসেম্বর ভরিতে সোনার দাম এক হাজার ২২৫ টাকা কমানো হয়েছিল। তার আগে ৯ নভেম্বর সব ধরনের সোনার দাম ভরিতে এক হাজার ২২৫ টাকা করে কমিয়েছিলেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

গত বছরের শেষ দিকে দুই দফা দাম কমানোর আগে ১৭ অক্টোবর ভরিতে দেড় হাজার টাকা বেড়েছিল সোনার দাম।

ব্যবসায়ীরা জানান, প্রতি ভরি ২২ ক্যারেটে ৯১ দশমিক ৬ শতাংশ, ২১ ক্যারেটে ৮৭ দশমিক ৫ শতাংশ, ১৮ ক্যারেটে ৭৫ শতাংশ বিশুদ্ধ সোনা থাকে।

সনাতন পদ্ধতির সোনা পুরোনো স্বর্ণালংকার গলিয়ে তৈরি হয়। এ ক্ষেত্রে কত শতাংশ বিশুদ্ধ সোনা মিলবে, তার কোনো মানদণ্ড নেই।

নতুন দর অনুযায়ী, প্রতি ভরি (১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রাম) ভালো মানের অর্থাৎ ২২ ক্যারেট সোনা ৪৭ হাজার ৪১৫ টাকা, ২১ ক্যারেট ৪৫ হাজার ৩১৫ টাকা এবং ১৮ ক্যারেটের দাম হবে ৩৮ হাজার ৬৬৭ টাকা। আর সনাতন পদ্ধতির সোনার ভরি হবে ২৭ হাজার ৫৮৬ টাকা।

বৃহস্পতিবার পর্যন্ত প্রতি ভরি ২২ ক্যারেট সোনা ৪৬ হাজার ১৯০ টাকা, ২১ ক্যারেট ৪৪ হাজার ৯০ টাকা এবং ১৮ ক্যারেট ৩৭ হাজার ৪৪২ টাকায় বিক্রি হবে। আর সনাতন পদ্ধতির সোনা ২৬ হাজার ৩৬১ টাকায় বিক্রি হবে।

রূপার দরও বাড়ছে

রুপার দামও ভরিতে ৫৮ টাকা বৃদ্ধি পেয়ে ১ হাজার ১৬৫ টাকা হচ্ছে। তবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত রুপা ১ হাজার ১০৮ টাকা দরে পাওয়া যাবে।