বার্তাবাংলা ডেস্ক »

japanরাহমান মনি, টোকিও থেকে :: যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের জন্য গঠিত আন্তর্জাতিক আপরাধ ট্রাইবুনাল দুই কর্তৃক দ্বিতীয় রায়ে মুক্তিযুদ্ধের সময় সংঘঠিত মানবতা বিরোধী অপরাধের দায়ে জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারী জেনারেল কাদের মোল্লাকে যাবতজীবন কারাদন্ডের আদেশ ঘোষনার পর ব্লগার অ্যান্ড অনলাইন অ্যাক্টিভিষ্ট নেটওয়ার্ক নামের একটি সংগঠন কর্তৃক যুদ্ধাপরাধ বিরোধী অগ্নিস্ফুলিঙ্গ দেশের গন্ডি পেড়িয়ে এখন বিদেশে ও ছড়িয়ে পড়েছে। শাহবাগের তরুন প্রজন্মের প্রতিধ্বনি এখন টোকিওতে শুরু হয়েছে। কাদের মোল্লাসহ একাত্তরের জল্লাদদের ফাঁসির দাবিতে ১০ ফেব্রুয়ারি রোববার স্থানীয় সময় বিকাল সাড়ে চারটায় টোকিও শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে জাপান প্রবাসীদের এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে দলমত নির্বিশেষে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশী উপস্থিত হন এই সমাবেশ কোন রাজনৈতিক সংগঠনের ব্যানারে হয়নি। হয়েছে সচেতন জাপান প্রবাসীদের উদ্যোগে পরস্পর পরস্পরের সঙ্গে যোগাযোগ করে স্বত:স্ফুর্ত ভাবে সবার অংশ গ্রহনে। নারীদের অংশগ্রহণ ছিল উল্লেখযোগ্য। দূর-দুরান্ত থেকে মাত্র একটি এস.এম.এস বা ই-মেইল পেয়ে অনেকে অংশগ্রহণ করেন। সমাবেশে বিশেষ কোন অতিথি বা বিশেষ বক্তা ছিলনা কোন রাজনৈতিক আহবান। ছিল কেবল একটি দাবি, রাজাকার মুক্ত বাংলাদেশ গড়া। প্রবাসীরা বলেন রাজাকার সে যে-ই হোক তাকে বিচারের কাঠগড়ায় দাড় করাতে হবে, কাদের মোল্লা, গোলাম আযম, দেলোয়ার হোসেন সাঈদীদের মতো ঘৃণিত যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির হুকুম দিয়ে অতিশীঘ্র তা কার্যকর করতে হবে।
প্রবাসীরা বলেন, নতুন প্রজন্ম যে কাজটি করতে পেরেছে তাতে করে আমরা গর্বিত, টোকিও থাকলে ও শাহবাগের সেই ভাই/বোনদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করছি। তারা বলেন, এ দাবী আজ সারা দুনিয়ায় ছড়িয়ে থাকা বাংলাদেশীদের প্রানের দাবী। এ দাবী আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবেই চলবে। নতুন প্রজন্ম মুক্তিযুদ্ধ দেখেনি শুনেছে, তাতেই তারা অনুপ্রানিত, তারা রাজাকার মুক্ত বাংলাদেশ গড়ে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »