ভয়াবহ খরার কবলে পড়েছে ভারতের ৩৩ কোটি মানুষ

ভয়াবহ খরার কবলে পড়েছে ভারতের ৩৩ কোটি মানুষ। জরুরি তহবিল বরাদ্দ করে পরিস্থিতি সামলানোর চেষ্টা করছে সরকার। সেই সঙ্গে খরা কবলিত এলাকাগুলোতে যাচ্ছে পানিবাহিত বিশেষ ট্রেন।
অনেক রাজ্যে পানির জলাধার এবং কুয়াগুলো শুকিয়ে গেছে। খরা পীড়িত লাতুর জেলায় পানি নিয়ে রওয়ানা হয়েছে বিশেষ ট্রেন। খরাপীড়িত গ্রামগুলোর কুয়ার পানির স্তর অনেক নিচে নেমে গেছে। ভারি পানির পাত্র নিয়ে পিচ্ছিল পাথর বেয়ে এর জোগাড় করতে হচ্ছে। এসব এলাকার অনেক কুয়া এর মধ্যেই শুকিয়ে গেছে যেগুলো কিনা কোন কোন গ্রামের একমাত্র পানির উৎস।

দুবছর ধরে বৃষ্টি না হওয়ায় ভারতের পশ্চিমাঞ্চলের এসব এলাকার লাখ লাখ বাসিন্দা সংকটে পড়েছে। শুধু মানুষই নয় সংকটে পশু এবং প্রাণীকুলও। প্রচণ্ড তাপ আর খরা থেকে বাঁচতে সরকারি ব্যবস্থাপনায় বেশকিছু খামার তৈরি করা হয়েছে, যেখানে কৃষকরা তাদের পশু প্রাণীগুলো নিয়ে আসতে পারেন। পরিস্থিতি সামলাতে প্রায় তিনশ কিলোমিটার দূরের এলাকা থেকে পানি নিয়ে আসছে বিশেষ ট্রেনগুলো। সরকারিভাবে পরিশোধন করার পর স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছে প্রতি চারদিনে একবার বিশুদ্ধ পানি দেয়া হবে।

এনজিও কর্মী পরিনীতা দান্ডেকর বলেন, এটাই হয়তো সরকারের শেষ চেষ্টা। আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে, এ বছর স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হবে। কিন্তু সেজন্য আরো অন্তত দুইটি শুষ্ক মাস অপেক্ষা করতে হবে। হাজার হাজার পরিবার তাদের গ্রামের ঘরবাড়ি ফেলে শহরে আশ্রয় নিতে চলে গেছে।