বার্তাবাংলা ডেস্ক »

bhashavabnaবার্তাবাংলা রিপোর্ট :: চট্টগ্রাম, সিলেট, ঢাকা, নোয়াখালী, বরিশাল, সাতীরা, ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল, রাজশাহী, জামালপুর এবং বাংলা লোকভাষা ও আদিবাসীদের ভাষার সুলুক সন্ধান করার চেষ্টা করা হয়েছে ‘ভাষাভাবনা’ বইটিতে। বইটির ভূমিকায় সাহিত্যিক শওকত আলী লিখেছেন, ভাষা নিয়ে বইয়ের উদ্যোগটি খুবই ভালো। প্রয়োজনীয় লেখা এরমধ্যে আনা হয়েছে। বাংলাভাষা, এই অঞ্চলের উপভাষা, ভাষা আন্দোলন Ñ এক মলাটে এ বিষয়গুলো সব আছে। এখানে লিখেছেন শব্দ, বাক্য, ব্যকরণ নিয়ে নাড়াচাড়া করা বিজ্ঞজনরাই। তরুনদের মধ্যে যে ভাষা বিকৃতির একটা ধারা বইছে তারা যে ঠিকভাবে কথা বলছে না তাও আছে এখানে। এক মলাটে বাংলাদেশের উপভাষাগুলোর বিষয়ে ধারণা যেমন আছে তেমনই আছে বাংলাভাষার বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে আলোচনা। আছে ভাষা আন্দোলনের প্রত্যদর্শীর তথ্য। ভাষা আন্দোলন নিয়ে নতুন লেখা। সব মিলে প্রশংসনীয় উদ্যোগ বলা চলে। অনেকে আগ্রহের বিষয় বইটিতে পাবে আশা করি।
ভাষা ভাবনা বাইটির লেখাগুলো মূলত তিনভাগে ভাগ করা হয়েছে। বর্তমান বাংলা ভাষ নিয়ে বিজ্ঞজনদের ভাবনা, বাংলাদেশের উপভাষা এবং ভাষা আন্দোলন।
বাংলাদেশের আঞ্চলিক বা উপভাষাগুলোর মধ্যে সিলেটের আছে নিজস্ব বর্ণ। সে বর্ণ দেখতে কেমন তার আগ্রহ অনেকের। সে বর্ণমালাগুলো যোগ হয়েছে বইটিতে।
বর্তমানে ভাষার অবস্থা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। পত্রিকা, পাঠ্যপুস্তক আর অভিধানের মধ্যে মিল নেই। পত্রিকার শব্দ একরকম আবার এক এক পত্রিকার বানান এক একরকম। পাঠ্যপুস্তকে আবার অন্যরকম। আর অভিধান আর একরকম। এফএম রেডিওগুলো যে কথা বা উচ্চারণ করছে তা যে কোন ভাষা তা সরলে বলা মুশকিল। রেডিওর সাথে টেলিভিশনের মিল নেই। একই পরিবারের সদস্যরা ভিন্নভাবে কথা বলছে। এসব বিষয়গুলো আলোচনা হয়েছে বইটিতে।

‘ভাষাভাবনা’ একনজরে
সম্পাদনা: রফিকুল বাসার
প্রচ্ছদ: সব্যসাচি হাজরা
সাম্প্রতিক প্রকাশনী
বইমেলা স্টল নং: ২১৫
মূল্য: ৩৯০ টাকা
পৃষ্ঠা: ৩০৪

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »