বার্তাবাংলা ডেস্ক »

Bashanta-utshav-bg20130212205150বার্তাবাংলা ডেস্ক ::ঋতু পরিক্রমায় আবার এসেছে ঋতুরাজ বসন্ত। কিন্তু এবারের বসন্ত যেন ভিন্ন সাজে, ভিন্ন মাত্রা নিয়ে এসেছে বাঙালির কাছে।

যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির একদফা দাবিতে সারা দেশ যখন ফুঁসছে তখন ঋতুরাজের এ আগমন আন্দোলনে প্রাণ সঞ্চার বৈ কিছু নয়।  সে উদ্দেশ্যেই দেশ মাতৃকার জাগরণে বসন্ত আবাহন সঙ্গীত দিয়ে শুরু হয়েছে এবারের বসন্ত উৎসব। সকাল সাড়ে ৭টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার অনুষদের বকুল তলায় বেসিক্যাল অর্কেস্ট্রার আর ভায়োলিনের মাধ্যমে বেজে ওঠে আবাহন সঙ্গীত। শিউলি ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে এটি পরিবেশন করে স্পর্শ মিউজিকাল অর্কেস্ট্রা দল।

এদিকে, শাহবাগের আন্দোলন আর বকুল তলার উৎসব মিলেমিশে একাকার হয়ে গেছে। উৎসবে আসা সবার চোখে মুখে উৎসব আমেজের পাশাপাশি যুদ্ধাপরাধীদের দাবি স্পষ্ট।

এ জন্য জাতীয় বসন্ত উৎসব উদযাপন পরিষদের অনুষ্ঠান সূচিতে নানা ধরনের পরিবর্তনও আনা হয়েছে। অনুষ্ঠানে যোগ হয়েছে দেশাত্মবোধক জাগরণী সঙ্গীত।

জাতীয় বসন্ত উৎসব উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মনজুরুল ইসলাম চৌধুরী সুইট বলেন, “আমরা একে একে আঠারটি বসন্ত কাটিয়ে এবার উনিশতম বসন্তে পা দিয়েছি। প্রজন্ম চত্বরে চলমান যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে আন্দোলন এবারের বসন্ত উৎসবে একটি ভিন্ন মাত্রা যোগ করেছে।”

তিনি আরও বলেন, “শাহবাগে যে লক্ষ্যে আন্দোলন চলছে আমরাও ঠিক একই লক্ষ্যে আজকের এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছি। শাহবাগের আন্দোলনের সঙ্গে আমাদের নীতিগত কোনো পার্থক্য নেই। এটি আমাদের পক্ষ থেকে সাংস্কৃতিক আন্দোলন।”

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »