নেপালে ভূমিকম্পে ৪ জনের মৃত্যু, আহত ১২

বার্তাবাংলা ডেস্ক :: রাজধানীসহ সারাদেশে কয়েক দফা ভূমিকম্পে অনুভূত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর ১টা ১৭ মিনিটে প্রথমবার ভূকম্পন অনুভূত হয়। ভূমিকম্পের প্রভাবে নেপালে ভূমি ধসে ৪ জন মারা গেছেন। আহত হয়েছেন কমপক্ষে ১২ জন।

প্রায় আধঘন্টা পর আবারো ভূকম্পন অনুভূত হয়। ইউএস জিওলজ্যিক্যাল সার্ভে জানায় প্রথম দফায় ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল ছিল নেপাল সীমান্ত লাগোয়া চীনের জাহম এলাকায়। রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৭.৪।

দ্বিতীয় দফায় ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল ছিল নেপালে। রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৬।

যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থার তথ্যমতে, উৎপত্তিস্থলে রিখটার স্কেলে এর তীব্রতা ছিল ৭ দশমিক ৪। উৎপত্তিস্থল ছিল চীনের দক্ষিণ-পূর্বে ঝাম এলাকা। নেপালে এর তীব্রতা ছিল ৭.১। মূলত ইউরেশিয়া ও ভারতীয় ভূতাত্ত্বিক প্লেটের সংযোগস্থলে ভূমিকম্পটি হয়।

ভূমিকম্প পর্যবেক্ষণ বিষয়ক আন্তর্জাতিক সংস্থা ইএমএসসি জানায় নেপালের কাঠমান্ডু থেকে ৮২ কিলোমিটার ও কোদারি থেকে ২৩ কিলোমিটার দূরে ভূগর্ভের মাত্র দুই কিলোমিটার গভীরে ভূমিকম্পটি বেলা একটা ১০ মিনিটে আঘাত হানে।

এএফপির খবরে জানানো হয়, ভূমিকম্পে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে অনুভূত হয়েছে। সেখানে এক মিনিটের বেশি সময় ধরে কম্পন অনুভূত হয়। এ সময় আতঙ্কিত লোকজন ঘরবাড়ি ছেড়ে বাইরে চলে আসে।

বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গায় এ ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। ভূমিকম্প বিশেষজ্ঞদের মতে, দূরত্বের কারণে বাংলাদেশে রিখটার স্কেলে ৪ থেকে ৫ তীব্রতার ভূমিকম্প অনুভূত হয়।

এর আগে গত ২৫ এপ্রিল ৭.৮ মাত্রার ভূমিকম্পে নেপালে আট হাজারের বেশি মানুষ প্রাণ হারান।