ওবামার মেয়েদের পোশাকের সমালোচনা করে বিপাকে

বার্তাবাংলা ডেস্ক ::  প্রেসিডেন্ট ওবামার দুই মেয়ের পোশাক নিয়ে ফেস বুকে স্ট্যাটাসে দিয়ে যেন বিপদেই পড়েছেন রিপাবলিকান কংগ্রেস সদস্য স্টিফেন ফিনচারের যোগাযোগ পরিচালক। এ ঘটনায় এলিজাবেথ লটেন নামের ওই যোগাযোগ পরিচালককে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে। তাকে পদত্যাগ করার আহ্বান জানানো হয়েছে।

ঘটনাটি বুধবারের। থ্যাঙ্কস গিভিং ডে’র অনুষ্ঠানে বাবা ওবামার সঙ্গে যোগ দেন মালিয়া (১৬) ও সাশা ওবামা (১৩)। তাদের পরনে ছিল শর্ট স্কার্ট।

বাবার সঙ্গে তাদের দেখে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে বসেন লটেন। পরে অবশ্য ওই স্ট্যাটাস মুছে ফেলেন তিনি। এ নিয়ে ক্ষমাও চান তিনি। কিন্তু তারপরেও ক্ষোভ মেটেনি ওবামা সমর্থকদের। তারা ফেসবুক টুইটারে পদত্যাগ দাবি করেছেন লটেনের।

লটেন তার স্ট্যাটাসে ওবামার দুই মেয়েকে উদ্দেশ্য করে লিখেছেন, ‘নিজেদের ক্লাস বোঝার চেষ্টা কর। কমপক্ষে তোমরা যে অবস্থানে রয়েছ তাকে অন্তত সম্মান করতে চেষ্টা কর।’

তিনি আরো লিখেছেন,‘বাবার সঙ্গে তোমাদের একেবারেই বিরক্তিকর লাগছে। আমি মনে করি তোমরা প্রয়োজনের তুলনায় বেশি ছোট পোশাক পড়েছ। তোমাদের অনুষ্ঠান অনুযায়ী পোশাক বাছা উচিত। তোমরা হোয়াইট হাউসের বাসিন্দা। তোমাদের আচার আচরণে তার বহি:প্রকাশ জরুরি।এ কারণেই তোমাদের আরো রুচিশীল পোশাক পড়া উচিত ছিল।’

লটেনের এই স্ট্যাটাস নিয়ে ওবামার দুই কিশোরী মেয়েও কিন্তু কম বিরক্ত হয়নি!

অবশ্য এই স্ট্যাটাস দিয়ে ফেঁসে গেছেন লটেনও। কংগ্রেসের এই নারী সদস্য পরে নিজের ভুল স্বীকর করে ফেসবুকে দেয়া এক পোস্টে লিখেছেন,‘আমার ভাষা যে অত্যান্ত রুক্ষ ছিল তা আমি পরিষ্কার বুঝতে পেরেছি। আমার কথায় যারা যারা কষ্ট পেয়েছেন তাদের সবার কাছে আমি ক্ষমাপ্রার্থী। অনেক শিক্ষা হয়েছে। ভবিষ্যতে আর ভুল হবে না।’

লটেনের স্ট্যাটাসে যারা মনক্ষুন্ন হয়েছেন তাদের একজন হচ্ছেন মার্কিন টেলিভিশন ব্যক্তিত্ব এবং আইনজীবী স্টার জোনস। তিনি ওই রিপাবলিকান সদস্যের সমোলোচনা করে লিখেছেন,‘জীবনে আমি বহু পিছলা মানুষ দেখেছি। কিন্তু ওর মত একজনও দেখিনি।’