ইরানের সঙ্গে এখনো চুক্তি হয়নি ছয় জাতির

বার্তাবাংলা ডেস্ক ::  ডেডলাইন ছুতে হাতে আছে চার দিনেরও কম সময়। ইরানের পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে ছয় জাতির সঙ্গে একটি চুক্তি হওয়ার চূড়ান্ত সময়সীমা ২৪ নভেম্বর। এর মধ্যে চুক্তি না হলে ইরানের সঙ্গে পশ্চিমা দেশগুলোর সম্পর্ক কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে, তা বলা মুশকিল

২৪ নভেম্বরের আগেই ইরানের সঙ্গে চুক্তি করার জন্য অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় আলোচনায় বসে জাতিসংঘের স্থায়ী পাঁচ সদস্য ও জার্মানি। কিন্তু ভিয়েনা আলোচনায় কোনো সিদ্ধান্তে আসতে পারেনি দুই পক্ষ।

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, চীন, রাশিয়া- জাতিসংঘের এই পাঁচ স্থায়ী সদস্য ও জার্মানি ‘ছয় জাতি’ নামে পরিচিত।
শুক্রবার আলজাজিরা অনলাইনের এক খবরে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ভিয়েনায় যাওয়া ইরানের প্রতিনিধি দলের একজন সদস্য জানান, তাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ তেহরানের উদ্দেশে উড়াল দিয়েছেন। দেশের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে পরামর্শ করবেন তিনি।

এদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি গেছেন ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে। সেখানে তিনি ইউরোপীয় নেতাদের সঙ্গে ইরানের পরমাণু প্রসঙ্গ নিয়ে পরামর্শ করবেন।

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, জন কেরির আগামী কয়েক দিনের কর্মসূচি ও সফরসূচি এখনো আগের মতোই রয়েছে। ফলে কবে তিনি ভিয়েনার ফিরবেন, তা নির্দিষ্ট নয়।

ভিয়েনায় অবস্থান করা ছয় জাতির কূটনীতিকদের কাছ থেকে জানা গেছে, ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী লরা ফ্যাবিয়াস ও ব্রিটেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রী ফিলিপ হ্যামন্ড শুক্রবার সকালের আলোচনা শেষে ভিয়েনা ছেড়েছেন।

ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী হ্যামন্ড বলেন, ইরানের সঙ্গে আমরা যদি একটি চুক্তিতে পৌঁছাতে পারি, তবে তা ভবিষ্যতের জন্য একটি উল্লেখযোগ্য কাজ হবে।

২৪ নভেম্বর, সোমবারের মধ্যে একটি পরিপূর্ণ চুক্তিতে পৌঁছানো সম্ভব হবে কিনা, তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকরা। ইরান কী পরিমাণে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ ও মজুদ কমাবে, তা নিয়ে পশ্চিমা নেতাদের সঙ্গে নির্দিষ্ট কোনো সিদ্ধান্তে এখনো পৌঁছানো সম্ভব হয়নি। আর এ নিয়েই যত সমস্য ও মতপার্থক্য।

তবে শেষ পর্যন্ত কী হয়, তা-ই দেখার অপেক্ষায় বিশ্ববাসী।