বগুড়ার ককটেল হামলা করতে গিয়ে কব্জি হারালো যুবক

বার্তাবাংলা রিপোর্ট ::  বগুড়ার গাবতলীতে ককটেল হামলা করতে গিয়ে তা বিস্ফোরণে কব্জি হারাতে হলো এক যুবকের।

শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার নওদাবগা শখের বাজার এলাকায় প্রতিপক্ষের ওপর ককটেল হামলা করতে গিয়ে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, সোনাতলা উপজেলার করমজা গ্রামের ফয়েজ উদ্দিনের ছেলে আহম্মেদ আলীর (৩২) সঙ্গে গাবতলী উপজেলার চক রাধিকা গ্রামের শহিদুল ইসলাম মামুনের পাওনা টাকা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।
এর জের ধরে শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে শখের বাজারে দুই পক্ষের সংঘর্ষ হয়। এ সময় আহম্মেদ আলী সেখানে ককটেল বিস্ফোরণ ঘটাতে গেলে তার হাতেই বিস্ফোরণ ঘটে। এতে তার ডান হাতের কব্জিতে ক্ষতের সৃষ্টি হয়। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসক অপারেশন করে আহম্মেদ আলীর ডান হাতের কব্জি কেটে ফেলেন।

সংঘর্ষে শহিদুল ইসলাম মামুন ও শাজাহান আলী নামের আরো ২ জন আহত হয়। তাদেরকে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

বগুড়ার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এ-সার্কেল ) নাজির আহম্মেদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

গাবতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রাজ্জাক জানান, ঘটনাস্থল গাবতলী এবং সোনাতলা থানার সীমান্তবর্তী এলাকা হওয়ায় দুই থানার পুলিশই সেখানে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ঘটনায় এখনও কোন পক্ষ মামলা দায়ের করেনি বলেও জানান তিনি।