তারেক রহমানের মনোবল ও দুঃশাসনে জাতীয়তাবাদী শক্তি উজ্জীবিত

বার্তাবাংলা রিপোর্ট ::  মামলা দিয়ে সরকার তারেক রহমানকে পর্যুদস্ত করতে সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়েছে অভিযোগ করে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, তবুও তার (তারেক রহমান) প্রত্যয়দৃঢ় বিশ্বাসকে তারা দুর্বল করতে পারেনি।
তিনি বলেন, এখনও দুঃশাসনের হুমকি প্রতিদিনই তার ওপর বর্ষিত হচ্ছে। ক্ষমতা জবরদখলকারীরা অবিরাম কটুক্তি ও কূরুচিপূর্ণ বক্তব্য দিয়ে গেলেও তার বিশ্বাস ও আদর্শ থেকে বিন্দুমাত্র টলানো যায়নি।

বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৪৯তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বাণীতে তিনি এ কথা বলেন।

মির্জা আলমগীর বলেন, ১/১১-তে তথাকথিত মঈন উদ্দিন-ফখরুদ্দিনের সরকার তারেক রহমানকে নিঃশেষ করার জন্য মামলা, শারিরীক নির্যাতন থেকে শুরু করে ক্রমাগত অপবাদ দিয়েও তাকে বিচলিত করতে পারেনি। যাদের আন্দোলনের ফসল ছিল ১/১১ সরকার, তারা ক্ষমতায় এসেই তারেকের বিরুদ্ধে নানামুখি চক্রান্তে আরো কয়েক ধাপ এগিয়ে যায়।

আওয়ামী লীগ সরকারের দুঃশাসনে দেশ ধ্বংসের কিনারে উপনীত হয়েছে মন্তব্য করে বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, দেশের সার্বভৌমত্ব ও স্বাধীনতা আজ হুমকির মুখে। বহুদলীয় গণতন্ত্রের শেষ চিহ্নটুকু মুছে ফেলে আবারও একদলীয় শাসনের অন্ধকার গুহায় দেশকে ঠেলে দেওয়া হয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, এই মুহূর্তে তারেক রহমানের অটুট মনোবল ও দৃঢ় নেতৃত্ব দুঃশাসনের বিরুদ্ধে জাতীয়তাবাদী শক্তিকে উজ্জীবিত করছে।
তারেক রহমানের জন্মদিন উপলক্ষে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব তাকে শুভেচ্ছা জানান এবং তার আশু সুস্থতা এবং সুখী ও দীর্ঘজীবন কামনা করেন।
মির্জা আলমগীর বলেন, তৃণমূল পর্যায়ে তরুণ সমাজকে জাতীয়তাবাদী রাজনীতিতে উদ্বুদ্ধ করে উন্নয়ন ও উৎপাদনের মধ্যে যুক্ত করতে পারলে দেশের কল্যান সাধিত হবে-এই চিন্তার ধারক-বাহক হিসেবে তারেক রহমান গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে ছুটে বেড়িয়েছেন। দেশের জনগোষ্ঠীর তৃণমূলে দীর্ঘদিনের অচলায়তন কাটিয়ে প্রাণসঞ্চার করেছিলেন তারেক রহমান।