ডুবে যাওয়া লঞ্চের আরো ১২ যাত্রীর লাশ উদ্ধার » Leading News Portal : BartaBangla.com

বার্তাবাংলা ডেস্ক »

Photo-3-08.02.1320130207230729বার্তাবাংলা ডেস্ক ::মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় মেঘনা নদীতে ডুবে যাওয়া লঞ্চটি তোলা হয়েছে, এর ভেতরে পাওয়া গেছে ১২ যাত্রীর লাশ।

এই নিয়ে শুক্রবারের এই দুর্ঘটনায় মোট ১৪ জনের লাশ পাওয়া গেল।

অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে ইসমানির চরের কাছে বালুবাহী একটি ট্রলারের ধাক্কায় ডুবে যায় এম এল সারস নামের লঞ্চটি।

এটি নারায়ণগঞ্জ থেকে চাঁদপুরের মতলব উপজেলার মাছুয়াখাল যাচ্ছিল।

ডুবে যাওয়ার পর শুক্রবার দুটি লাশ উদ্ধার করে অগ্নিনির্বাপক বাহিনীর ডুবুরীরা। তারা হলেন- ময়না আক্তার (২৬) ও প্রিন্স (১৭ মাস)।

মুন্সীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপ সহকারী পরিচালক মো. ইয়াহিয়া আলী শিকদার সাংবাদিকদের জানান, শনিবার ভোররাতে ডুবন্ত লঞ্চটির ভেতরে তল্লাসি চালিয়ে আরো ১০টি লাশ পাওয়া যায়।

এই ১০ জনের মধ্যে চারজন নারী, তিনটি শিশু ও তিন জন পুরুষ। তাদের পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি।

এরপর শনিবার সাড়ে ৯টার দিকে উদ্ধারকারী জাহাজ রুস্তম লঞ্চটিকে তীরে উঠিয়ে আনে। লঞ্চটির ভেতরে এ সময় আরো এক নারী ও এক পুরুষের লাশ পাওয়া যায়।

দুর্ঘটনার পর শুক্রবার দুপুর থেকে রুস্তুম ডুবে যাওয়া লঞ্চটিকে তীরে টেনে তোলার কাজ শুরু করে।

মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. সাইফুল হাসান বাদল জানান, রাত পৌনে ১টায় উদ্ধার কাজ স্থগিত করা হয়। শনিবার সকাল থেকে আবার উদ্ধার কাজ শুরু হয়েছে।

লঞ্চটি তীরে টেনে তোলা হলেও নিখোঁজ যাত্রীদের খোঁজে এখনো অনুসন্ধান চলছে বলে জানান তিনি।

জেলা প্রশাসক শুক্রবার মধ্যরাতে সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, ১৬ যাত্রী নিখোঁজ রয়েছেন।

এরপর ১২ জনের লাশ পাওয়া যায়। প্রশাসনের হিসাব অনুযায়ী এখনো নিখোঁজের সংখ্যা ৪।

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »