বার্তাবাংলা ডেস্ক »

Dating App

criketবার্তাবাংলা রিপোর্ট ::  সিরিজের মাঝপথে ভারত ছাড়েন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটাররা। আর্থিক ক্ষতি পুষিয়ে নিতে শ্রীলঙ্কাকে আমন্ত্রণ জানায় ভারতের ক্রিকেট বোর্ড। আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে ভারতে আসেন লঙ্কানরা।

কিন্তু সিরিজটিতে তাদের কপালে জুটেছে এক রাশ লজ্জা। ৫ ম্যাচেই হার। তার মানে ভারতের কাছে হোয়াইটওয়াশ। তাহলে ব্যাপারটি দাঁড়াল ডেকে এনে অপমান করার মতোই!

সিরিজের পুরো আধিপত্য ছিল ভারতের। কিন্তু শ্রীলঙ্কাকে হোয়াইটওয়াশ করার পরও কপালে ভাঁজ পড়ল ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলির। জানালেন, টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের পারফরম্যান্স নিয়ে বেশ চিন্তিত তিনি।

রাঁচিতে সিরিজের শেষ ম্যাচে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের সেঞ্চুরিতে ২৮৬ রান করে সফরকারী শ্রীলঙ্কা। লঙ্কান অধিনায়কের ব্যাট থেকে আসে ১৩৯ রান। জবাবটা ভালোই দিয়েছেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলিও। মজার বিষয় হচ্ছে, ভারতীয় দলপতির ব্যাট থেকেও আসে ঠিক ১৩৯ রান। তবে পার্থক্য হচ্ছে, ম্যাথুসের সেঞ্চুরি ভেস্তে গেছে। আর কোহলির সেঞ্চুরি এনে দিয়েছে ভারতের কাক্সিক্ষত জয়। সিরিজের শেষ টেস্টে ভারত জয় পেয়েছে ৩ উইকেটে।

সিরিজে পাঁচে পাঁচ জয়ের পরেও আত্মতুষ্টি নেই টিম ইন্ডিয়ার অধিনায়কের। রাঁচিতে এ দিন ভারতের টপঅর্ডার ব্যাটসম্যানরা যেভাবে উইকেট ছুঁড়ে দিয়েছেন, তা দেখার পরই  কপালে ভাঁজ পড়েছে কোহলির।

এ বিষয়ে ভারতের ‘পোস্টার বয়’ বলেন, ‘সিরিজ ৫-০ তে জিতলেও ভারতের ব্যাটিং নিয়ে আমি সত্যিই চিন্তিত। এ দিন যেভাবে উইকেট পড়েছে, সেটা বড়ই অস্বস্তির। ম্যাচের পরিস্থিতি তো সবাই দেখেছেন।’

রাঁচিতে কোহলি ছাড়া ভারতের পক্ষে বলার মতো রান করেছেন আম্বাতি রাইডু (৫৯)। বাকিরা ছিলেন আসা-যাওয়ার মিছিলে। অষ্টম উইকেটে অক্ষর প্যাটেলকে নিয়ে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান কোহলি।

ম্যাচ শেষে ৩৪ বলে ১৭ রান করা অক্ষরের প্রশংসায় কোহলি বলেন, ‘অক্ষর অনেক ঠা-া মাথায় খেলার চেষ্টা করেছে। আমি যেমন বলেছি তেমনটাই করেছে সে। লড়াইটা সহজ ছিল না। আমাকে যখন জয়ের রানের জন্য লড়াই করতে হচ্ছিল, তখন উল্টো দিকের পার্টনারের ধৈর্য্যটাও খুব গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছিল। যে ধৈর্য্য অক্ষর দেখিয়েছে।’

Dating App
শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »