ভুয়া বন্দুকযুদ্ধের দায়ে ৭ সেনার যাবজ্জীবন

বার্তাবাংলা ডেস্ক ::  ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরে ভুয়া বন্দুকযুদ্ধ সাজিয়ে তিন যুবককে হত্যার অভিযোগে সাত ভারতীয় সেনাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। অভিযুক্ত সেনাদের মধ্যে দুজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাও রয়েছেন।
চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ওই যুবকদের কাছ থেকে টাকা নেওয়া হয়। ২০১০ সালে চাকরি দেওয়ার কথা বলে ওই যুবকদের কাশ্মীরের ম্যাকহিলে আনা হয়। সেখানে ভুয়া বন্দুকযুদ্ধ সাজিয়ে তাদের হত্যা করা হয়। তবে অভিযুক্ত সেনাদের দাবি, তারা তাদের পাকিস্তান থেকে আসা সন্ত্রাসী ভেবেছিলেন। নিহতরা হলেন, কাশ্মীরের নাদিহাল থেকে আসা শেহজাদ আহমেদ, রিয়াদ আহমেদ ও মোহাম্মদ শাফি। ২০১০ সালের ২৭ এপ্রিল তারা নিজ বাড়ি থেকে নিখোঁজ হন।
ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বৃহস্পতিবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তাদের সব ধরনের কর্মকাণ্ড থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। বাতিল করা হয়েছে সেনাবাহিনী থেকে অবসরে যাওয়ার পর পাওয়া সব সুবিধাও।
অভিযুক্তরা হলেন, কর্নেল ডিকে পাঠানিয়া, ক্যাপ্টেন উপেন্দ্র সিং, সুবেদার সাদবীর সিং, হাবিলদার বীর সিং, ও সিপাহি চন্দ্রবান, নাজেন্দ্র সিং ও নীরেন্দ্র নাথ সিং। তারা সবাই আর্মি-৪ রাজপতি রেজিমেন্টের সদস্য।
দেশটির একটি সিভিল কোর্ট এ হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে তদন্ত করে এই হত্যাকাণ্ডে তাদের সংশ্লিষ্টতা খুঁজে পান। পরে মামলাটি সামরিক আদালতে স্থানান্তরের নির্দেশ দেন। ২০১৪ সালে সামরিক আদালতে তাদের বিচার শুরু হয়। তথ্যসূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া