চট্টগ্রামের সমাবেশ জনসমুদ্র : লড়াইয়ের শপথ নিল প্রতিবাদী তারুণ্য » Leading News Portal : BartaBangla.com

বার্তাবাংলা ডেস্ক »

bg-movememt-of-rajakar20130208061257বার্তাবাংলা ডেস্ক ::যুদ্ধাপরাধী কাদের মোল্লার ফাঁসির দাবিতে চট্টগ্রামে গণঅবস্থান কর্মসূচি তৃতীয় দিনে জনতার সমাবেশে পরিণত হয়। সেখানে জড়ো হওয়া হাজারো তরুণ লাখো শহীদের রক্তের নামে লড়াইয়ের শপথ নেন।

শুক্রবার বিকেলে উদীচী ও চারণ সাংস্কৃতিক গোষ্ঠীর গানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় কর্মসূচি। এরপর জামালখান এলাকার পুরো সড়ক জুড়ে অবস্থান নেয় আন্দোলনকারীরা। এরপর বিকেল পাঁচটায় সমাবেশে আসেন শহীদ জায়া বেগম মুশতারী শফি। তিনি হাজারো জনতাকে শপথ বাক্য পাঠ করান।

হাজারো প্রতিবাদী কণ্ঠে ধ্বনিত সেই শপথে বলা হয়, ‘স্বাধীনতা বিরোধী ঘাতক-রাজাকার যুদ্ধাপরাধীদের এদেশের মাটি থেকে নির্মূলে নিজেদের সর্বশক্তি নিয়োগ করব। লাখো শহীদের রক্তের নামে শপথ করছি যে, মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীতাকারী যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে লড়াই চালিয়ে যাব।’

‘আমরা আরও শপথ করছি যে, শহীদ জননী জাহানার ইমামের স্বপ্ন বাস্তবায়নে এবং ৯২ এর গণআদালতের গণরায় প্রতিষ্ঠিত না হওয়া পর্যন্ত আমাদের সংগ্রাম অব্যাহত রাখব। যারা ৭১ এর পরাজিত শত্র“কে রাজনৈতিক-সামাজিকভাবে প্রশ্রয় দিয়ে লাখো শহীদের রক্তের সঙ্গে বেঈমানী করেছে তাদের বিরুদ্ধে আন্দোলন চালিয়ে যাব।’

আরও শপথ করছি যে, `জামায়াত ইসলামীসহ সকল ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিষিদ্ধ করা এবং ধর্ম নিরপে, গণতান্ত্রিক ও শোষণমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার ল্েয আজীবন লড়াই চালিয়ে যাব। বিজয় আমাদের সুনিশ্চিত।’

এরপর প্রতিবাদী শ্লোগানে মুখরিত হয়ে ওঠে পুরো এলাকা। শ্লোগান ওঠে ‘ফাঁসি ফাঁসি ফাঁসি চাই, রাজাকারের ফাঁসি চাই, ‘মুক্তিযুদ্ধের হাতিয়ার গর্জে ওঠো আরেকবার,’ ’জামায়াত শিবির রাজাকার এই মুর্হূতে বাংলা ছাড়।’, ‘ক তে কাদের মোল্লা, তুই রাজাকার, তুই রাজাকার।’

শুক্রবার সমাবেশে আসেন মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আফসার। তিনি বলেন, ‘মুক্তিযোদ্ধা অস্ত্র হাতে লড়াই করেছি। তারপর ৪১ বছর যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসির দাবিতে সংগ্রাম করছি। আমাদের লড়াই এখনো শেষ হয়নি। বাংলার মাটি রাজাকার মুক্ত করেই লড়াই শেষ হবে।’

সমাবেশ স্থল ঘুরে দেখা গেছে, পুরো এলাকা প্রতিবাদী জনতার দখলে। কেউ গান গাইছেন, কেউ রাস্তায় আলপনা আঁকছেন আবার কেউ শ্লোগান তুলছেন। সমাবেশে আসা সব বয়সী মানুষের মাথায় বাঁধা জাতীয় পতাকা। কারো পরনে ফাঁসির দাবি সম্বলিত টিশার্ট। ফাঁসির দাবিতে বিভিন্ন সংগঠনের ব্যানার-ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে পুরো এলাকা।

নারী-পুরুষ, শিশু, বর্ষীয়না মুক্তিযোদ্ধা, ছাত্র, শিক্ষক, শ্রমজীবীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের মিলন মেলায় পরিণত হয় সমাবেশ স্থল।

উল্লেখ্য, গত বুধবার সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী তরুণ উদ্যোগ, চট্টগ্রামের আহ্বান করে গণ অবস্থানের। স্বতঃর্স্ফূত জনতার অংশগ্রহণে সেই অবন্থান পরিণত হয় সমাবেশে।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন পেশাজাবী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি এ কিউ এম সিরাজুল ইসলাম, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ হায়দার, সাংবাদিক হাসান ফেরদৌস, সাম্প্রদায়িকতা বিরোধ তরুণ উদ্যোগের আহ্বায়ক শরীফ চৌহান, আমরা করব জয় এর প্রধান নির্বাহী শওকত বাঙ্গালি, আওয়ামী লীগ নেতা মফিজুর রহমান, আবৃত্তিশিল্পী রাশেদ হাসান, উদীচীর সুনীল ধর প্রমুখ।

সমাবেশে সংহতি প্রকাশ করেন কমিউনিস্ট পার্টি, ওয়াকার্স পার্টি, উদীচী, চারণ শিল্পী গোষ্ঠী, ছাত্র ইউনিয়ন, ছাত্র মৈত্রী, ছাত্র ফেডারেশন, ছাত্র মৈত্রী, ছাত্রলীগ, খেলাঘর, অনলাইন এক্টিভিস্ট ফোরাম, পরিবেশ ছাত্র ফোরামসহ বিভিন্ন নাট্য সংগঠন।

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »