শিগগিরই জেনেভা কনভেনশন ভাঙছে ইসরায়েল

বার্তাবাংলা রিপোর্ট ::  জেনেভা কনভেনশন লঙ্ঘন করে ইসরায়েল ফিলিস্তিনের অধীকৃত এলাকাসমূহে একের পর এক বসতি স্থাপন করেই চলেছে এবং এ ব্যাপারে শান্তির পতাকাবাহী জাতিসংঘ অবলম্বন করছে নিরব অবস্থান; সেই নিরবতার সুযোগে আরও এককাঠি বেড়ে এবার পূর্ব জেরুজালেমে শিগগিরই আরও ১০০০ বসতি স্থাপন করার ঘোষণা দিয়ে বসেছে ইসরায়েলি প্রশাসন।

সম্প্রতি ফিলিস্তিনের প্রশাসন এক বৈঠকে আগামীতে ফিলিস্তিনের স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দিয়েছিল এবং তাতে জাতিসংঘের সহায়তামূলক হস্তক্ষেপ প্রত্যাশা করেছিল, এ ব্যাপারে বিশ্বনিতাদের কোন প্রকার মন্তব্য এখনও জানা যায়নি। ঐ বৈঠকে ফিলিস্তিন প্রত্যাশা করেছিল ১৯৬৭ সালের সীমানা নিয়ে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশে তারা সমর্থ হবে।

বসতি স্থাপনপরিকল্পনার ভেন্যু ঐ পূর্ব জেরুজালেমও ফিলিস্তিনের স্বপ্নে স্বাধীন রাষ্ট্রের অন্তর্ভূক্ত ছিল। তাতে বাধ সাধতেই ইসরায়েলের জেনেভা কনভেনশনের পুনঃপুনঃ লঙ্ঘন, এমনটাই মনে করছেন বিশ্লেষকেরা।

পূর্ব জেরুজালেমে ১০০০ বসতি স্থাপনের নতুন খবর গণমাধ্যমে এলেও আসেনি নতুন করে পশ্চিম তীরে আবারও বসতি স্থপনের পরিকল্পনার কথা। তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে তা জানিয়ে দিয়েছেন ইসরায়েল প্রশাসনের এক কর্তাব্যক্তি।

ফিলিস্তিনের পক্ষ থেকে বিরোধীতা করা হয়েছে ইসরায়েলের এ সিদ্ধান্তের, পূর্ব জেরুজালেমকে তারা পূর্ব হতেই নতুন রাষ্ট্রের রাজধানী হিসেবে ঠিক করে রেখেছেন। ইসরায়েল প্রশাসন প্রজ্ঞাপনে জানিয়েছে পুরো জেরুজালেম তাদের রাজধানী হিসেবে বহাল থাকবে।

জেরুজালেমের ঐ অংশটিই মুসলিম, খ্রিস্টান ও ইহুদিদের জন্যে পবিত্রতম, স্থপনা ও ঐতিহ্যগত দিক থেকে।

জেনেভা কনভেনশন ভাঙার বিপরীতে কোর রাষ্ট্রের জাতিসংঘের সদস্যপদ বাতিল হয় এবং উপর্যপুরি বহুমাত্রিক অবরোধ আরোপ হতে থাকে, কিন্তু সিব কিছুরই ছোঁয়াচ বাঁচিয়ে ইসারয়েল তা লঙ্ঘন করে চলেছে, বিপরীতে অভিভাবক জাতিসংঘ কদাচ নিন্দা জ্ঞাপন ব্যতিরেকে নিষ্ক্রীয় ভূমিকা পালন করছে।