বাংলাদেশ ব্যাংকের অদ্ভূত নিয়ম কানুন থাকবেই

বার্তাবাংলা ডেস্ক :: ব্যবসায়ীদের কার্যক্রমে সভ্যতা (নিয়তান্ত্রিকতা) না আসা পর্যন্ত বাংলাদেশ ব্যাংকের অদ্ভূত নিয়ম কানুন থাকবেই। ব্যবসায়ীদের উদ্ভট কার্যক্রমের কারণেই এসব অদ্ভূত নিয়ম করা হয়েছে।

শনিবার এক অনুষ্ঠানে অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক অ্যান্ড ফিন্যান্সিয়াল ইন্সটিটিউশন ডিভিশনের সচিব ড. এম আসলাম আলম এমন মন্তব্য করেন।

আন্তর্জাতিক বাজারের সঙ্গে আমদানি-রপ্তানিতে এলসির (ঋণপত্র) ক্ষেত্রে বাংলাদেশে ব্যাংকের অনেক অদ্ভূত নিয়মকানুন রয়েছে, যা আন্তর্জাতিক কোম্পানি বা ব্যবসায়ীদের নিকট হাস্যকর। ব্যবসায়ীদের এমন মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি এ কথা বলেন।

‘ফ্যাক্টরিং: এলসির বিকল্প পন্থা’ শীর্ষক এ গোলটেবিল আলোচনার আয়োজন করে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) এবং বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট (বিআইবিএম)।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. এম আসলাম আলম বলেন, ‘আামদের অভ্যন্তরীণ ফ্যাক্টরিং কার্যক্রম অনেক আগ থেকে রয়েছে। অভ্যন্তরীণ ফ্যাক্টরিং কার্যক্রম আরও জোরদার করতে হবে। যার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ফ্যাক্টরিং ব্যবস্থা প্রবর্তনের ক্ষেত্রে সমস্যাসমূহ চিহ্নিত করার পাশাপাশি সেগুলো নিরসন করা সম্ভব হবে।’

তিনি বাংলাদেশে ফ্যাক্টরিং ব্যবস্থা আরোও সম্প্রসারণের জন্য ব্যবসায়ী সম্প্রদায়কে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান এবং এ ক্ষেত্রে অর্থ মন্ত্রণালয়ের পাশাপাশি সরকারের পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

উল্লেখ্য, কোনো ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বকেয়া বিল কমিশনে দেনাদার ছাড়া তৃতীয় কোনো পক্ষের কাছে বিক্রি করাকে ফ্যাক্টরিং বলে।
যেমন: কোনো প্রতিষ্ঠান তার ১০০০ টাকা মূল্যের বকেয়া বিল নগদ ৯০০ টাকার বিনিমেয় তৃতীয় কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রি করেছে। মেয়াদ পূর্তিতে বিলটির ক্রয়কারী ১০০০ টাকা পাবে। এক্ষেত্রে ক্রয়কারী ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান কমিশন হিসেবে ১০০ টাকা পাবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন- বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্টের (বিআইবিএম) মহাপরিচালক ড. তৌফিক আহমদ চৌধুরী।

স্বাগত বক্তব্য দেন- ডিসিসিআই সভাপতি মোহাম্মদ শাহজাহান খান। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিআইবিএমের পরিচালক (গবেষণা, ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড কনসালটেন্সি) ড. প্রশান্ত কুমার ব্যানার্জী।

নির্ধারিত আলোচনায় অংশনিয়ে ডিসিসিআই-বিআইবিএম নেতারা অংশ নিয়ে এ ব্যবস্থার সঠিক প্রয়োগের জন্য কার্যকর নীতিমালা প্রণয়নের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।