বিএসএফের নির্যাতনে বাংলাদেশি রাখালের মৃত্যুর অভিযোগ

বার্তাবাংলা ডেস্ক :: নওগাঁর সাপাহার সীমান্তে বিএসএফের নির্যাতনে মমিন (১৯) নামে এক বাংলাদেশি রাখালের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে।সোমবার বিকেলে উপজেলার কলমুডাঙ্গা সীমান্তের ২৩৮ নং পিলার এলাকার এস-২ এর অদূরে তার ভাসমান লাশ পাওয়া যায়। তিনি উপজেলার কলমুডাঙ্গা চৌমহনী গ্রামের আফাজ উদ্দিনের ছেলে।সাপাহার থানার ওসি নূর ইসলাম জানান, বিকেলে স্থানীয় লোকজন বিলের পানিতে তার লাশ ভাসতে দেখে পুলিশে খবর দিলে থানার এসআই শাহীন রেজা ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে। লাশের মুখে গুরুতর আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।গ্রামবাসীরা জানায়, গত শনিবার মমিন চোরাচালানীদের সঙ্গে রাখাল হিসাবে ভারত থেকে গরু আনতে গেলে ভারতের আদাতলা ৩১ বিএসএফ ক্যাম্পের জওয়ানরা তাকে পিটিয়ে হত্যা করে বিলের পানিতে ফেলে দেয়।তবে তার বাবার দাবি, মমিন কোনো চোরাকারবারীতে জড়িত ছিল না। গত শনিবার সে বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয় এবং সোমবার বিকেলে সীমান্তের ২৩৮ নং পিলার এলাকার এস-২ এর বিল থেকে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে।কলমুডাঙ্গা বিজিবি ক্যাম্পের কমান্ডার নায়েক সুবেদার মোফাজ্জল হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। তবে লাশ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে পাওয়া যাওয়ায় বিএসএফকে এ ব্যাপারে কিছু জানানো হয়নি বলেও তিনি জানান।