খুলনায় ট্রলারডুুবি: ৩ লাশ উদ্ধার

বার্তাবাংলা রিপোর্ট :: দাকোপের পশুর নদীতে মালবাহী ট্রলার ডুবিতে নিখোঁজ তিন যাত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

সোমবার পৃথক তিনটি স্থান থেকে লাশগুলো উদ্ধার করা হয়। তবে রাত পৌনে ১০টা পর্যন্ত ডুবে যাওয়া ট্রলারটির সন্ধান পাওয়া যায়নি। মৃতদেহগুলো পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।

নিহত তিন যাত্রী হলেন- সোহেল আহম্মেদ, সোহরাব হোসেন হাওলাদার ও লোকমান হোসেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, চালনা পৌরসভার মেরিন ঘাট এলাকায় সোহেল আহম্মেদের লাশ, পাইকগাছার দেলুটি এলাকা থেকে সোহরাব হোসেন হাওলাদার ও চালনা বাজারের কাছ থেকে লোকমান হোসেনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

এর আগে, শনিবার দুপুরে খুলনার ১নং কাস্টমস ঘাট থেকে একটি মালবাহী ট্রলার দাকোপের সুতারখালীর আছিয়া সি ফুডের একটি ২শ’ কেবি জেনারেটর নিয়ে রওনা দেয়। পথিমধ্যে রাত ৮টার দিকে দাকোপ উপজেলা সদর চালনার পশুর নদীর ত্রি-মোহনায় পৌঁছলে প্রবল স্রেতে ট্রলারটি ডুবে যায়। এ সময় ট্রলারে থাকা সাত জনের মধ্যে চার জন সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও সোহরাব হোসেন হাওলাদার, লোকমান হোসেন ও সোহেল আহম্মেদ নদীতে ডুবে যান।

দাকোপ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজুল হক রাত পৌনে ১০টার দিকে বাংলামেইলকে জানান, স্থানীয়দের সহযোগিতায় পুলিশ বিভিন্ন নদী থেকে তাদের ভাসমান লাশ উদ্ধার করে। লাশগুলো পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ ট্রলার মালিক ফজলুর রহমান ও ট্রলারের মাঝি হাবিব ভুঁইয়াকে আসামি করে থানায় মামলা করেছে।