সকালে সিদ্ধান্ত রাতে প্রত্যাহার

বার্তাবাংলা রিপোর্ট :: সময়ের আলোচিত জুটি মাহি ও বাপ্পির সঙ্গে কাজ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বাংলাদেশ চলচ্চিত্র নৃত্য পরিচালক সমিতি। সকালে সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদ এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। কিন্তু চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশকদের অনুরোধে রাতেই তা প্রত্যাহার করে নেয়। এ রিপোর্ট প্রকাশ হওয়ার সময় বাপ্পি কক্সবাজারে শুটিং করছেন ইস্পাহানী আরিফ জাহান পরিচালিত ‘গুণ্ডা দ্য টেরোরিস্ট’ ছবির। আর এতে নৃত্য পরিচালনা করছেন সাইফ খান কালু। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র নৃত্য পরিচালক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ইমদাদুল হক খোকন মানবজমিনকে বলেন, বাপ্পি ও মাহি আমাদের নৃত্য পরিচালক সমিতির সভাপতি, চলচ্চিত্র পরিচালক এবং একাধিকবারের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত স্বনামধন্য নৃত্য পরিচালক মাসুম বাবুলের সঙ্গে কোন মনোমালিন্য বা ঝগড়াঝাঁটি ছাড়াই বিভিন্ন চলচ্চিত্র প্রযোজক ও পরিচালককে দেয়া শুটিংয়ের সিডিউল বাতিল করে অন্য নৃত্য পরিচালককে দিয়ে ওই শুটিংগুলো করতে বাধ্য করছেন। তাদের এই দুঃসাহসিকতায় আমরা চলচ্চিত্র নৃত্য পরিচালক সমিতির সব সদস্য চলচ্চিত্রের ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কিত। ইমদাদুল হক খোকন বলেন, বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের মর্যাদা ও স্বার্থরক্ষার্থে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র নৃত্য পরিচালক সমিতির সাধারণ সভায় সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত হয় যে, নৃত্য পরিচালক সমিতির অন্তর্ভুক্ত সব নৃত্য পরিচালক চিত্রনায়ক বাপ্পি ও মাহির সঙ্গে অনির্দিষ্টকালের জন্য কোন শুটিংয়ে অংশগ্রহণ করবেন না। সকালে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার পর চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক মোহাম্মদ হোসেন ও মাহি বাপ্পির আবিষ্কারক আবদুল আজিজের হস্তক্ষেপে রাতেই ঘটনাটি মিটমাট হয়ে যায়। নৃত্য পরিচালক মাসুম বাবুলের সঙ্গে দু’জনেরই কথা হলে মাসুম বাবুল বিষয়টি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র নৃত্য পরিচালক সমিতির ওপর ছেড়ে দেন। নৃত্য পরিচালক সমিতি প্রযোজক পরিচালক ইস্পাহানী আরিফ জাহানের আউটডোর শুটিংয়ের কথা বিবেচনা করে তাদের সিদ্ধান্ত সাময়িকভাবে প্রত্যাহার করার পর নৃত্যপরিচালক সাইফ খান কালু কক্সবাজারের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেন। কক্সবাজার থেকে বাপ্পি ফিরে আসার পর তার সঙ্গে মাহি, নৃত্য পরিচালক সমিতি, মোহাম্মদ হোসেন ও আবদুল আজিজের সম্মিলিত বৈঠকের পর পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে বাপ্পির সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এটা ভুল বোঝাবুঝি। সব ঠিক হয়ে গেছে। কক্সবাজার থেকে ফিরে আসার পর আমরা মিলেমিশে সব ঠিকঠাক করে ফেলবো।