ফেরি চলাচলে বিঘ্ন, দীর্ঘ যানজট

বার্তাবাংলা ডেস্ক :: বৈরী আবহাওয়া ও প্রবল স্রোতের কারণে মাওয়া-কাওড়াকান্দি নৌ রুটে ফেরি চলাচল বিঘ্নিত হচ্ছে। দূর্ঘটনা এড়াতে অধিকাংশ সময় ফেরির সংখ্যা কমানো বাড়ানো হচ্ছে। ফলে ঘাটে পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে কয়েক হাজার যানবাহন ও পণ্যবাহী ট্রাক। ভোগান্তিতে পড়েছেন যাত্রীরা।

মাওয়া ঘাটের একাধিক সূত্র জানায়, ঘাটে ফেরির সংখ্যা কমানো বড়ানোয় স্বাভাবিক ভাবে পারাপার হচ্ছে না। যে কয়টি ফেরি চলাচল করছে, তাও গন্তব্যে পাড়ি দিতে দ্বিগুণ সময় লাগছে। ফেরি চলাচল ব্যাহত হওয়ায় পারাপারের জন্য মাওয়া ঘাটে পণ্যবাহী ট্রাকসহ ৫ শতাধিক যানবাহন আটকা পড়েছে। একই অবস্থা কাওড়াকান্দি ঘাটেও। সেখানে কয়েক শতাধিক যানবাহন আটকা পড়েছে বলে জানা গেছে।

মাওয়ার বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহণ করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) সহব্যবস্থাপক চন্দ্র শেখর রায় জানান, আটকে পড়া যানের মধ্যে যাত্রীবাহি যানগুলো আগে ছেড়ে দেয়া হচ্ছে । বৈরী আবহাওয়া ও পদ্মায় প্রচণ্ড স্রোতের কারণে দূর্ঘটনা এরাতে ডাম ফেরি রাতে চালানো বন্ধ রাখা হয়েছে। রাতে শুধুমাত্র কয়েকটি রো রো ফেরি চালানো হচ্ছে। শনিবার সকাল থেকে এ রুটে ডাম ফেরি ৬টি, কে-টাইপ ৩টি, রো রো ৩টিসহ ১৬টির মধ্যে ১৩টি ফেরি চলাচল করছে। আবহাওয়া স্বাভাবিক হলে পুনরায় এসব চালু করা হবে বলে জানন তিনি।

মাওয়ার বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহণ করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) ম্যানেজার সিরাজুল ইসলাম জানান, নদীতে প্রচণ্ড স্রোত বৈছে। দুপুর ১টার দিকে হঠাৎ করে ফেরি টেনে রাখা তার ছিঁড়ে গেলে ১নং ফেরি ঘাট সাময়িক বন্ধ হলেও পরে তা সচল হয়। এখন ১নং ও ২নং ফেরি ঘাট দিয়ে ফেরি চলছে।

উল্লেখ্য, এর আগে মাওয়ার ৩নং ফেরি ঘাটের স্থান নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাওয়ায় ঘাটটি এখন বন্ধ রয়েছে। ফেরিঘাটটি পুনরায় নির্মাণের কাজ চলছে।