লেবানন থেকে ৩০০ প্রবাসী ফেরার অপেক্ষায়

বার্তাবাংলা রিপোর্ট :: লেবানন থেকে প্রায় ৩০০ প্রবাসী দেশে ফেরার অপেক্ষায়। আগামী মাসের শুরুতে এই প্রবাসীরা দেশে ফেরা শুরু করবেন বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে। কূটনীতিক সূত্রে জানা গেছে, লেবানন প্রবাসীদের মধ্যে প্রায় ৩০ শতাংশ অবৈধ। পাশাপাশি বৈধদের মধ্যেও অনেকের কাজের মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। সম্প্রতি লেবানন সরকার একটি ঘোষণা দিয়েছে, অবৈধ বা বিভিন্ন কারণে যারা দেশটিতে বৈধভাবে থাকতে পারছেন না তারা চাইলে দেশে ফিরতে পারেন। উল্লেখ্য, স্বাভাবিক সময়ে অবৈধভাবে বসবাসের জন্য লেবানন পুলিশের হাতে কেউ ধরা পরলে বছর প্রতি ২০০ ডলার জরিমানাসহ দণ্ড পেতে হয়। দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে এই ঘোষণার পর এখন কেউ দেশে ফিরতে চাইলে তাকে এই জরিমানা দিতে হবে না। জানা গেছে, লেবানন সরকারের এই ঘোষণার পর প্রায় ৩০০ বাংলাদেশি দেশে ফেরার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। চলতি মাসের শেষ সপ্তাহে এদের নাম অর্ন্তভূক্ত করবে লেবাননে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস। সেপ্টেম্বরের শুরুতে তাদের দেশে পাঠানো শুরু হবে। বাংলাদেশের পক্ষে লেবাননের রাষ্ট্রদূত নজরুল ইসলাম দ্য রিপোর্টকে বলেন, ‘দেশটির সরকারের পক্ষ থেকে একটি ছাড় দেওয়া হয়েছে। এই ছাড়ের আওতায় কেউ দেশে ফিরতে চাইলে তাকে ২০০ ডলার জরিমানা গুনতে হবে না। এরই মধ্যে প্রায় ৩০০ বাংলাদেশি দেশে ফিরতে চেয়েছেন। তাদের দেশে পাঠানোর জন্য কাজ করছে দূতাবাস।’ তিনি আরও বলেন, ‘অন্য সময়ে অবৈধরা দেশটির নিরাপত্তাকর্মীদের হাতে ধরা পড়লে নগদ জরিমানাসহ দণ্ড পেতে হয়।’ জানা গেছে, প্রায় দুই লাখ বাংলাদেশি রয়েছেন লেবাননে। এদের মধ্যে প্রায় ৭০ শতাংশ প্রবাসীই লেবাননে গৃহপরিচারিকার কাজ করেন। বাকিরা বিভিন্ন দোকান, পরিচ্ছন্নতাকর্মীসহ বিভিন্ন পেশার সঙ্গে জড়িত। প্রবাসীদের বেশির ভাগই দেশটির রাজধানী বৈরুতকেন্দ্রিক অঞ্চলে বসবাস করেন।