হাসির রাজা রবিন উইলিয়ামস

বার্তাবাংলা রিপোর্ট :: হাসির রাজা অস্কার জয়ী মার্কিন অভিনেতা রবিন উইলিয়ামস সবাইকে কাঁদিয়ে চলে গেছেন। ক্যালিফোর্নিয়ার স্যান ফ্রান্সিসকোয় নিজ বাড়ি থেকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার হয়। পুলিশের ধারণা তিনি আত্মহত্যা করেছেন। ‘গুড মর্নিং ভিয়েতনাম’ এবং ‘ডেড পয়েটস সোসাইটি’র মত ছবিতে অভিনয় করে তারকাখ্যাতি অর্জন করেছিলেন রবিন। তবে তিনি ১৯৯৭ সালে অস্কার পেয়েছিলেন ‘গুড উইল হান্টিং’ ছবির জন্য।
যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের শিকাগো শহরে ১৯৫১ সালের ২১ জুলাই জন্মগ্রহণ করেন রবিন উইলিয়ামস। তার পুরো নাম রবিন ম্যাকলরিন উইলিয়ামস। রবিন উইলিয়ামস বিয়ে করেছেন তিনবার।
টেলিভিশনে রবিনের প্রথম কাজ টিভি সিরিজ মর্ক অ্যান্ড মিন্ডি, যার মাধ্যমে তিনি পরিচিতি পান। ১৯৮০ সালে পপাই চরিত্র দিয়ে চলচ্চিত্রে তার অভিষেক ঘটে। যদিও ছবিটি তেমন সফল হয়নি। কিন্তু আর পেছনে ফিরে তাকাননি তিনি।
১৯৮৭ সালে ভিয়েতনাম যুদ্ধের ওপর একটি ওয়ার কমেডি নির্মাণ করা হয় গুড মর্নিং ভিয়েতনাম নাম দিয়ে। রবিন ওই চলচ্চিত্রে সামরিক রেডিও ডিজে’র ভূমিকায় অভিনয় করেন। এই ছবিটির কারণেই কমেডিয়ান হিসেবে তার জনপ্রিয়তা ছড়িয়ে পড়ে। সেই সঙ্গে পান অস্কার মনোনয়ন এবং গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার জেতেন তিনি।
১৯৯১ সালে স্টিভেন স্পিলবার্গের পরিচালিত ‘হুক’ চলচ্চিত্রে উইলিয়ামস অভিনয় করেন পিটার প্যানের ভূমিকায়। স্পিলবার্গ ওই চলচ্চিত্র নির্মাণ শেষে বলেছিলেন, ‘উইলিয়ামস একজন কমিক জিনিয়াস, যিনি হাসির ঝড়ের তোড়ে আমাদের ভাসিয়ে নিয়ে যেতে পারেন।’
মিসেস ডাউটফায়ারের কথা মনে আছে? ১৯৯৩ সালে নির্মিত এই চলচ্চিত্রে উইলিয়ামস কমেডিকে ভিন্ন উচ্চতায় নিয়ে গিয়েছিলেন। ন্যানির ভূমিকায় তার অভিনয়ের কারণে মুভিটি বিশ্বের ১০০টি মজার ছবির মধ্যে স্থান করে নেয়।
অনেক বছর ধরে নানা পুরস্কার পেলেও অস্কার অধরাই ছিল উইলিয়ামসের কাছে। কিন্তু ১৯৯৭ সালে সেই অধরাকে ধরিয়ে দিল ‘গুড উইল হান্টিং’ চলচ্চিত্রটি। সেরা পার্শ্ব অভিনেতা হিসেবে দুর্দান্ত অভিনয়ের জন্য অস্কার জেতেন উইলিয়ামস।
এই ট্রিলজির শেষটিতে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট থিওডর রুজভেল্টের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন তিনি। ছবিটি মুক্তি পায় ২০০৬ সালে। বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা তার মৃত্যুতে গভীরভাবে শোক প্রকাশ করে বলেছেন, ‘উইলিয়ামস যাবার আগে ছুঁয়ে দিয়ে গেছেন মানব চেতনার প্রতিটি বিন্দু। আমাদের যেসব সেনা বাইরে আছেন তাদের মুখে হাসি ফোটাত তার অভিনয়।’
২০১৩ সালে তার অভিনীত দ্য বাটলার ছবিটি মুক্তি পায়। সেখানে আবারো মার্কিন প্রেসিডেন্টের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন তিনি। তার অভিনীত মুক্তি পাওয়া শেষ মুভি এটি।
বেশ কিছুদিন ধরে মারাত্মক বিষণ্ণতায় ভুগছিলেন বলে জানিয়েছেন তার এজেন্ট। গত কয়েক বছরে নিজের অ্যালকোহল ও মাদক ছাড়ার চেষ্টা নিয়ে একাধিকবার প্রকাশ্যে রসিকতা করেছেন রবিন উইলিয়ামস। সোমবার স্থানীয় সময় দুপুর ১২টায় নিজ বাসভবনে তার মৃত্যু হয়।