বার্তাবাংলা ডেস্ক »

bangladesh bank 0120.3বার্তাবাংলা ডেস্ক::সুইস ব্যাংকে গচ্ছিত বাংলাদেশিদের অর্থের ব্যাপারে তথ্য চেয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের দেয়া চিঠির এখনো কোনো জবাব আসেনি আর জবাব আদৌ মিলবে কিনা সে বিষয়টিও নিশ্চিত নয় – জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক এম. মাহফুজুর রহমান।

তবে সৌজন্যমূলক হলেও এ বিষয়ে কিছু একটা জবাব পাওয়ার আশা করছে বাংলাদেশ ব্যাংক বলে জানান তিনি। দেশ টিভিকে দেয়া একান্ত সাক্ষাতকারে এ কথা বলেন তিনি।

পাশাপাশি তথ্য আদান-প্রদানের বিষয়ে দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংক ইউএসবির সঙ্গে সমঝোতা স্বারক স্বাক্ষরে বাংলাদেশ ব্যাংকের আগ্রহেরও কোনো জবাব মেলেনি বলেও জানান তিনি।

অবৈধ ও হিসাব বহির্ভূত অর্থের নিরাপদ গন্তব্য সুইস ব্যাংক। তথ্য গোপনের নিশ্চয়তা থাকায় বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বিপুল অর্থ পাচার হয়ে আসে সুইজারল্যান্ডের এ ব্যাংকগুলোতে।

দু-একটি ব্যতিক্রম ছাড়া লেনদেন সম্পর্কিত কোনো তথ্যই সুইস ব্যাংকগুলো কাউকে দেয় না। এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের চিঠির জবাবও দিচ্ছে না তারা।

সুইজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংক এসএনবি প্রকাশিত প্রতিবেদনে শুধু জানা গেছে, সেখানে বাংলাদেশিদের নামে কী পরিমাণে অর্থ জমা আছে। তবে কার নামে কত টাকা জমা আছে সে তালিকা না দেয়ায় এ বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারছে না বাংলাদেশ ব্যাংক।

বাংলাদেশ ও সুইজারল্যান্ডের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মধ্যে এ বিষয়ে কোনো চুক্তি না থাকায় তথ্য পাওয়া না পাওয়ার বিষয়ে নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারছে না বাংলাদেশ ব্যাংক। তবে এসএনবির সঙ্গে সমঝোতা স্বারক সই হলে তথ্য পাওয়া সহজ হবে বলে মনে করছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।

তথ্য পাওয়াই যেখানে নিশ্চিত নয় সেখানে পাচারকৃত অর্থ দেশে ফিরিয়ে আনাটাকে একরকম অসম্ভই মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »