‘ভোটাধিকার ফিরিয়ে দেয়া না হলে আন্দোলন হবে’

বার্তাবাংলা রিপোর্ট :: বতর্মান সরকারকে অবৈধ ও অগণতান্ত্রিক উল্লেখ করে, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ভোটাধিকার ফিরিয়ে দেয়া না হলে আন্দোলনই হবে একমাত্র উপায়।

শুক্রবার সকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি। এসময় তিনি আরো বলেন, জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার ফিরিয়ে না দিলে আন্দোলনের মাধ্যমে সরকার পতন ঘটানো হবে।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, ‘ক্ষমতাসীনেরা জনগণের মনের কথা অবজ্ঞা করে সমস্ত হিংস্রতা দিয়ে দেশের ওপর যেভাবে ঝাঁপিয়ে পড়ে বিকল্প পথ বন্ধ করে দিতে চাইছে, তাতে তারা জেনেশুনে বিষ পান করছে। এর পরিণতি হবে ইতিহাসে বিরল।’

রিজভী বলেন, ‘সরকারের এই অবাধ ও বেপরোয়া চণ্ডনীতিতে শুধু আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার কিছু কর্মকর্তা ও সদস্যরাই উত্সাহিত হননি, বরং দলীয় অঙ্গ-সংগঠনগুলো মানবতা, সভ্যতা, মানুষের জানমালের নিরাপত্তার বিরুদ্ধে এক বিশাল দৈত্যাকার হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে।’

রিজভী বলেন, ‘নগ্ন স্বৈরতন্ত্রের’ বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়েও বিএনপির ক্রমবর্ধমান জনপ্রিয়তায় সরকার তাল হারিয়ে ফেলছে। এ কারণে ক্রোধে অস্থির ও উন্মত্ত সরকার কাণ্ডজ্ঞান হারিয়ে ফেলে প্রতিদিন হাত রক্তে ডুবিয়ে রাখছে। মারণাস্ত্র ও সন্ত্রাসই হচ্ছে এ সরকারের টিকে থাকার একমাত্র গ্যারান্টি। প্রতিদিন বিরোধী দলের নেতা-কর্মীরা কেউ না কেউ খুন কিংবা গুম হচ্ছেন।

সংবাদ সম্মেলনে এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সহ দপ্তর সম্পাদক আব্দুল লতিফ জনি, ঢাকা মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আব্দুস সালাম প্রমুখ।