বন্ধুকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র জমা

বার্তাবাংলা রিপোর্ট :: নগরীর আগ্রাবাদে কথিত প্রেমিকের হাতে মা-মেয়েকে নৃশংসভাবে খুন হওয়ার ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার অভিযোগপত্র আদালতের জিআর শাখায় জমা দিয়েছে পুলিশ।

রোববার বিকেল ৫টার দিকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও ডবলমুরিং থানার উপরিদর্শক (এসআই) মাঈন উদ্দিন অভিযোগপত্রটি জমা দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (প্রসিকিউশন) রেজাউল মাসুদ বলেন, ‘আবু রায়হান ও শহীদ ড্রাইভারকে অভিযুক্ত করে তদন্ত কর্মকর্তা অভিযোগপত্র আদালতের নিবন্ধন শাখায় জমা দিয়েছেন। আট পৃষ্ঠার এ অভিযোগপত্রে ৩৭ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে। এটি সোমবার আদালতে দাখিল করা হবে।’

আদালত সূত্রে জানা গেছে, আলোচিত এ হত্যা মামলার অভিযোগপত্রে নিহত নিশাতের কথিত বন্ধু আবু রায়হান ওরফে আরজু (২১) এবং ভাড়াটে খুনি শহিদকে (২৫) আসামি হিসেবে অভিযুক্ত করা হয়েছে।
প্রেমে প্রত্যাখাত হয়ে প্রতিশোধ নিতে রায়হান খুনি শহীদকে ভাড়া করে দুজনে খুনের ঘটনা ঘটিয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা।

গত ১২ মে চাঞ্চল্যকর এ মামলার অভিযোগপত্রের সাক্ষ্য স্মারক অনুমোদনের জন্য মহানগর পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ফখরুদ্দিনের কাছে নিয়ে যান তদন্তকারী কর্মকর্তা।

গত সপ্তাহে সেটি অনুমোদন হয়ে থানায় ফেরত যায়।

উল্লেখ্য গত ২৪ মার্চ সকালে নগরীর ডবলমুরিং থানার আগ্রাবাদ সিডিএ আবাসিক এলাকার ১৭ নম্বর সড়কে যমুনা নামে একটি ভবনের চতুর্থ তলায় জনৈক সিঅ্যান্ডএফ ব্যবসায়ীর স্ত্রী রেজিয়া বেগম (৫০) এবং মেয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থী সায়মা নাজনীন নিশাতকে (১৬) পায়ের রগ কেটে ও কুপিয়ে হত্যা করা হয়।