বার্তাবাংলা ডেস্ক »

nor234বার্তাবাংলা ডেস্ক :: নারায়ণগঞ্জে আইনজীবি ও কাউন্সিলরসহ ৭ অপহরণের প্রধান সন্দেহভাজন আসামি নুর হোসেনকে ক্রসফায়ারে দেয়া হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন নিহত কাউন্সিলর নজরুল ইসলামের শ্বশুর শহীদুল ইসলাম। ঘটনা ধামাচাপা দিতে র‌্যাব এ ঘটনা ঘটাতে পারে বলে তার আশংকা। নুর হোসেনকে জীবিত গ্রেপ্তারের দাবি জানান তিনি। শুক্রবার শহীদুল ইসলাম সাংবাদিকদের কাছে এই আশংকার কথা জানিয়ে বলেন, র‌্যাবের ৩ কর্মকর্তাকে চাকুরী থেকে অবসর দেয়ার পর তাদের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত আর কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। ওই র‌্যাব কর্মকর্তারা খুনি। তাদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করার দাবি করেছিলাম। কিন্তু সরকার তা করেনি। সরকার এই র‌্যাব কর্মকর্তাদের বাঁচাতে এবং ঘটনা ধামাচাপা দিতে নুর হোসেনকে মেরে ফেলতে পারে বলে তিনি জানান। তিনি বলেন, নুর হোসেনকে যদি ক্রসফায়ার দিয়ে হত্যা করা হয় তাহলে আসল ঘটনার কথা জানা যাবে না। তিনি বলেন, ঘটনার ১৩ দিন পার হয়ে গেল। এজাহারভুক্ত ১ জন আসামিকেও সরকার গ্রেপ্তার করতে পারল না। এটা প্রশাসনের কেমন তৎপরতা? প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নির্দেশ দেন কিন্তু আসামি গেপ্তার হয় না। তিনি আরও বলেন, আড়াইহাজারে প্রধানমন্ত্রীর জনসভার মঞ্চে সন্ত্রাসী নুর হোসেন ছিল। মঞ্চে এমপিরা জায়গা পায় না। সন্ত্রাসী নুর হোসেন কিভাবে জায়গা পায়? তিনি ক্ষোভের সঙ্গে বলেন, বিচার কি হবে জানি। র‌্যাবের ৩ কর্মকর্তা, সাবেক এসপি নুরুল ইসলাম, সিদ্ধিরগঞ্জের সাবেক ওসি মতিন ও ফতুল¬ার সাবেক ওসি আক্তারকে গ্রেপ্তার করুক। তাদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করুক তাহলেই সব বের হয়ে যাবে।

শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »