বার্তাবাংলা ডেস্ক »

Dating App

b12 বার্তাবাংলা রিপোর্ট :: আগামী শনিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর হিসেবে ড. আতিউর রহমানের দায়িত্ব গ্রহণের পাঁচ বছর পূর্ণ হতে যাচ্ছে। বিশিষ্ট এ অর্থনীতিবিদ ও গবেষক ২০০৯ সালের ওই দিনে দশম গভর্নর হিসেবে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে যোগ দেন।

আতিউর রহমানের নেতৃত্বের পাঁচ বছরে টেকসই অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনের পাশাপাশি দেশের অর্থনীতির অধিকাংশ সূচকের বড় ধরনের উল্লম্ফন ঘটেছে বলে মনে করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।

শুক্রবার গণমাধ্যমে পাঠানো বাংলাদেশ ব্যাংকের এক প্রতিবেদনে এ দাবি করা হয়।

এতে বলা করা হয়, গভর্নরের উপযুক্ত সিদ্ধান্ত ও দূরদর্শী ভূমিকায় বৈরি রাজনৈতিক পরিস্থিতিতেও অর্থনীতির সূচকগুলো স্বস্তিদায়ক অবস্থানে রয়েছে।

এছাড়া মুদ্রানীতি প্রণয়ন, আইন ও বিধি-বিধান সংস্কারে অংশগ্রহণমূলক, মানবিক ও জনমুখী বৈশিষ্ট্য বাংলাদেশ ব্যাংক ও ব্যাংকিং খাতে এসেছে অভাবনীয় পরিবর্তন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, পাঁচ বছরে দেশে প্রবৃদ্ধি, আমদানি, রপ্তানি, রেমিট্যান্স, বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ, চলতি হিসাবে উদ্বৃত্ত ব্যাপকহারে বেড়েছে।

গত চার বছরে মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি ৫ দশমিক ১৪ শতাংশ থেকে বেড়ে গড় প্রবৃদ্ধি ৬ দশমিক ৩৩ শতাংশ হয়েছে।

রেমিট্যান্স ৯ দশমিক ৬৯ বিলিয়ন ডলার থেকে বেড়ে হয়েছে ১৪ দশমিক ৪৬ বিলিয়ন ডলার। আর আমদানি ব্যয় দাঁড়িয়েছে ২২ দশমিক ৫১ বিলিয়ন থেকে ৩৩ দশমিক ৯৭ বিলিয়ন ডলার। ১৫ দশমিক ৬৫ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে রপ্তানি আয় এখন ২৭ বিলিয়ন ডলারে।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০০৮-০৯ অর্থবছরে দেশে বৈদেশিক মুদ্রা রিজার্ভ ছিল সাড়ে ৬ বিলিয়ন ডলার। রেমিট্যান্স ও রপ্তানি আয়ে বড় ধরনের প্রবৃদ্ধির কারণে গত ১৪ এপ্রিল প্রথমবারের মতো বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ২০ বিলিয়ন ডলারের মাইলফলক অতিক্রম করে। পাঁচ বছরে রিজার্ভ রেড়েছে ১৭০ শতাংশ।

এছাড়া আর্থিক অন্তর্ভুক্তির অংশ হিসেবে কৃষক ও হতদরিদ্রদের এক কোটি ৩৩ লক্ষ ব্যাংক হিসাব খোলা হয়েছে। যার মধ্যে কৃষকদের জন্যে প্রায় ৯৭ লক্ষ হিসাব রয়েছে। সরকারের বিভিন্ন সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচির সুবিধাভোগী, গার্মেন্টস শ্রমিক, পরিচ্ছন্ন কর্মী ও স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্যে আরো ৩৬ লক্ষ হিসাব খোলা হয়েছে।

স্কুল ব্যাংকিংয়ের আওতায় চার বছরের কম সময়ে প্রায় ৩ লাখ স্কুল ছাত্র-ছাত্রী ব্যাংক হিসাব খুলেছে, যাতে জমার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে প্রায় ৩০০ কোটি টাকা।

দেশে কৃষি ও এসএমই ঋণ বিতরণ, নতুন উদ্যোক্তা ও কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং নারীর ক্ষমতায়নের উদ্যোগ নতুন মাত্রা পেয়েছে।

এতে দাবি করা হয়, মোবাইল ব্যাংকিং, কর্পোরেট সামাজিক দায়বদ্ধতা (সিএসআর), সবুজ ব্যাংকিং, ব্যাংকিং খাত ডিজিটাইজেশন, মানি লন্ডারিং ও সন্ত্রাসে অর্থায়ন প্রতিরোধ, সুপারভিশন কার্যক্রমসহ বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেন সহজীকরণের উদ্যোগ প্রথাগত ব্যাংকিং ধারণাকে বদলে দিয়েছে।

Dating App
শেয়ার করুন »

মন্তব্য করুন »