ঢাবিতে সাংবাদিককে পেটালো ছাত্রলীগ

ঢাবিপ্রতিনিধি: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের ক্যাডাররা এক সাংবাদিককে পিটিয়ে আহত করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত ওই সাংবাদিকের নাম ইরফান এইচ সায়েম। তিনি ‘দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশ’এর বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার। শনিবার রাত ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হলের গেস্ট রুমে এ ঘটনা ঘটে। এ বিষয়ে ইরফান এইচ সায়েম বলেন, “শাওন গ্রুপের ছাত্রলীগ নেতা আব্দুল হক রনি বহিরাগত এক শিক্ষার্থীকে আমার সিটে বেডমেট হিসেবে থাকতে বলে। পরে আমি এর প্রতিবাদ করলে ছাত্রলীগের দুই ক্যাডার আমার ওপর হামলা করে।” ইরফান এইচ সায়েম অভিযোগ করে জানান, তিনি হলের (৩১৭ নম্বর) রুমে থাকতেন। ওই রুমে হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আবু সালমান প্রধান শাওন তার পরিচিত এক ছাত্রকে তার বেডমেট হিসেবে থাকতে বলেন। কিন্তু পরে সাংবাদিক ইরফান জানতে পারেন ওই শিক্ষার্থী বহিরাগত। তিনি শাওনের এলাকা থেকে এসেছেন। যে কারণে ইরফান এর প্রতিবাদ করেন। পরে শাওন গ্রুপের দুই ছাত্রলীগ ক্যাডার আব্দুল হক রনি ও মোহাম্মদ ইউসুফ ইরফানকে হলের গেস্টরুমে ডেকে নিয়ে যান। সেখানে ছাত্রলীগের নেতারা তার সাথে দুর্ব্যবহার ও অকথ্য ভাষায় কথা বলেন। ইরফান এর প্রতিবাদ করে। পরে ছাত্রলীগের ওই দুই ক্যাডার গেস্টরুমেই ইরফানকে মারতে শুরু করে। এক পর্যায়ে ইরফানকে তারা হল থেকে বের করে দেয়। এ সময় ইরফানের শরীরের বিভিন্ন অংশ থেকে রক্ত বের হয়। পরে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারের প্রাথমিক চিকিৎসা নেন। এদিকে ছাত্রলীগ সূত্রে জানা যায়, ওই দুই ছাত্রলীগ নেতা হল শাখা ছাত্রলীগের পদপ্রাপ্ত ক্যাডার। আব্দুল হক রনি হল ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এবং মোহাম্মদ ইউসুফ যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক। তবে এ বিষয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি আবু সালমান প্রধান শাওন বলেন, “এ ব্যাপারে এখনো কিছুই জানি না।” ছাত্রলীগের নেতা শাওন ও তার গ্রুপের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে এর আগেও অনেক অভিযোগ রয়েছে বলে জানা গেছে। শাওন ক্যাম্পাস ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মদ, হিরোইন, গাজা, ফেনসিডিল, ইয়াবা ও তামাকসহ বিভিন্ন নেশাজাতীয় দ্রব্যের ব্যবসার সাথে সম্পৃক্ত বলে অভিযোগ রয়েছে। এর আগে শাহবাগে মদ নিয়ে বার কর্মচারীদের সাথে সংঘর্ষে ওই নেতাকে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে সতর্কবাণী দেয়া হয় বলেও হল সূত্রে জানা যায়।