প্রথম বৈঠকেই বোল্ড কাজী জাফর

বার্তাবাংলা ডেস্ক :: বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটে যোগ দিয়ে শরিক দলের নেতাদের সঙ্গে প্রথম বৈঠক করলেন জাতীয় পার্টির একাংশের চেয়ারম্যান কাজী জাফর আহমেদ।

খালেদা জিয়ার সভাপতিত্বে তার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বৃহস্পতিবার জোট নেতারা বৈঠক করেন। এতে ১৯ দলের শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন। রাত ১০টায় শুরু হওয়া বৈঠক চলে প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী। পরিবেশ আইনবিদ বেলার নির্বাহী সৈয়দা রিজওয়ানার স্বামী আবু বকর সিদ্দিক অপহরণ, আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি, ভারতের নির্বাচন, আন্দোলন কর্মসূচি, লংমার্চ কর্মসূচি সফল প্রভৃতি বিষয় নিয়ে জোট নেতারা আলোচনা করেছেন।

বৈঠক সূত্র  জানায়, জোটের প্রথম সভায় অংশ নিয়ে কাজী জাফর সবাইকে ধন্যবাদ জানান। আগামী আন্দোলন সংগ্রামের জন্য বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামকে আলমগীরকে সমন্বয়ক করে একটি কমিটি গঠনের প্রস্তাব দেন কাজী জাফর। তার এ প্রস্তাবে কোনো সিদ্ধান্ত দেননি বিএনপি চেয়ারপারসন।

বৈঠক থেকে বেরিয়ে কাজী জাফর আহমেদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘বিদ্যুৎ, গ্যাস, তিস্তা ব্যারেজ ইস্যু নিয়ে শিগগিরই ১৯ দলীয় জোট আন্দোলনে নামবে। রিজওয়ানা হাসানের স্বামী অপহরণের ঘটনায় বৈঠকে নেতারা তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে সমন্বয় করে এ ব্যাপারে শিগরিই কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। তিস্তা অভিমুখে বিএনপির লংমার্চে জোট নেতাদের সমর্থন রয়েছে। এই কর্মসূচিতে অংশ নিতে বেগম খালেদা জিয়া নেতাদের বলেছেন।’

বাংলাদেশ লেবার পার্টির সভাপতি ডা. মুস্তফিজুর রহমান ইরান বলেন, ‘অল্প সময়ের মধ্যে কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে বৈঠকের সিদ্ধান্ত জানানো হবে।’

বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি ( বিজেপি) চেয়ারম্যান আন্দালিভ রহমান পার্থ বলেন, ‘১৯ দলীয় জোট উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেয়ায় অনেকে সমালোচনা করেছে। জোট নেতাদের মূল্যায়ন হলো উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেয়া সঠিক সিদ্ধান্ত ছিল। এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে একটা প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে যে, এই সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে না।’

দল এবং জোটগতভাবে আন্দোলন চলছে জানিয়ে জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা) সভাপতি শফিউল আলম প্রধান বলেন, ‘১৮ দলীয় জোটের ওপর দিয়ে ঝড় বয়ে গেছে। বিএনপি এখন দল গোছাচ্ছে। এই প্রক্রিয়া শেষ হলেই পরবর্তী কর্মসূচি।’