নীলক্ষেতে বই বিক্রেতা-ঢাবি শিক্ষার্থী সংঘর্ষ

বার্তাবাংলা রিপোর্ট:: রাজধানীর নীলক্ষেত এলাকায় বই বিক্রেতাদের সঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ হয়েছে। বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা এ সময় ফুটপাতে কয়েকটি বইয়ের দোকানে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ ঘটনায় শিক্ষার্থী-ব্যবসায়ী-পুলিশ ত্রিমুখী সংঘর্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের আট শিক্ষার্থী আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

আহতরা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আবু সাঈদ, সাব্বির, শাহীন, সোহান, শিমুল, শাহাদাৎ, আলীম এবং এফ রহমান হলের ক্যান্টিন বয় বাবুল হোসেন। এদের মধ্যে আবু সাঈদ ও শাহাদাতের অবস্থা গুরুতর বলে জানিয়েছে কর্তব্যরত চিকিৎসক।
শুক্রবার বিকেল পৌনে ছয়টার দিকে এ সংঘর্ষ শুরু হয়ে প্রায় আধা ঘণ্টা চলে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাঁদুনে গ্যাস ও রাবার বুলেট ছুড়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের উপ কমিশনার মারুফ হোসেন।

সূত্র জানায়, বিকালে সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের এক ছাত্রের সঙ্গে এক ব্যবসায়ীর বইয়ের দাম নিয়ে বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে ওই ব্যবসায়ী ছাত্রের গায়ে ধাক্কা দেয়। বিক্ষুব্ধ ওই ছাত্র হলে ফিরে ২০/৩০ জন শিক্ষার্থী নিয়ে নীলক্ষেতের দিকে যেতে থাকে। তাদের দেখে বই ব্যবসায়ীরা ধাওয়া দিলে ছাত্ররা হলে ফিরে যায়। পরে বিকাল ৫টা ৪০ মিনিটের দিকে আবার শতাধিক ছাত্র হল থেকে লাঠিসোঁটা, রড ও হকিস্টিকসহ দেশি অস্ত্র নিয়ে নীলক্ষেতের দিকে গেলে দুপক্ষের মধ্যে সংষর্ষ বাঁধে।

রমনা থানার উপ পুলিশ কমিশনার মারুফ হোসেন সরদার, নিউমার্কেট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামিম, শাহবাগ থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সংঘর্ষের ঘটনায় বর্তমানে ওই এলাকায় প্রচুর যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।