গাছের সঙ্গে গাছের বিয়ে!

বার্তাবাংলা ডেস্ক :: গাছের সঙ্গে গাছের বিয়ে! রূপকথা নয়; বাস্তবেই এমন ঘটনা ঘটেছে দিনাজপুরের রাজবাটীতে। রাজবাটীর কালিয়া জিউ মন্দিরে এবার সাত পাঁকে বাধা পড়লো ১৫ বছরের পুরোনো একটি বট ও একটি পাকুড় গাছ। ধর্মীয় বিশ্বাস আর গাছের প্রতি গভীর মমতা থেকে এই বিয়ের আয়োজন করে স্থানীয় মন্দিরের পুরোহিত।

ঢোলের বাজনায় গান আর নাচে মুখর ছিল বিয়ে বাড়ি প্রাঙ্গণ। বরযাত্রীর আগমন, অতিথি আপ্যায়ন আর সনাতনী বিয়ের আচার প্রথা কোনো কিছুরই কমতি ছিল না এই বিয়েতে। বট আর পাকুড় গাছের বিয়ে বলে কথা! পাকুড় বটকে আকড়ে ধরে বেঁচে থাকে শত বছর। এই দৃষ্টিকোণ থেকেই পাকুড় গাছ ছেলে আর বট গাছ মেয়ে। বট পাকুড়ের বিয়ে দিলে মানুষের জন্য তা কল্যাণ বয়ে আনবে বলে মনে করেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা। আর এই বিশ্বাস থেকেই রাজবাটি কালিয়া জিউ মন্দিরের পুরোহিত এই বিয়ের আয়োজন করেন। ব্যাতিক্রমী এই বিয়ে দেখতে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা ছাড়াও ভিড় জমান দূর-দূরান্তের অনেকেই। শিশুদের জন্যও বাড়তি আনন্দ জোগায় এই আয়োজন।

বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগে গাছ রক্ষা করে তার চারপাশের পরিবেশ। আর তাই বৃক্ষ নিধন নয়, বৃক্ষ বেঁচে থাকুক অনন্তকাল এমনটাই প্রত্যাশা অনুষ্ঠানের আয়োজকদের।