সুচিত্রা সেন আর নেই

বার্তাবাংলা রিপোর্ট ::  বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তী অভিনেত্রী সুচিত্রা সেন মারা গেছেন। শুক্রবার সকাল ৮টা ৫৫ মিনিটে কলকাতার বেলভিউ হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

নিঃশ্বাস যন্ত্রের সংক্রমণে স্বাস্থ্যের অবনতি হওয়ায় সুচিত্রা সেন নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে রাখা হয়েছিল। গত ২৩ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় ফুসফুসে পানি আসার কারণে শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় কলকাতার বেলভিউ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল তাকে।

এদিকে, সূচিত্রা সেনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সুচিত্রা সেন লাখো বাঙালীর হৃদয়ের রাণী। বাংলা চলচ্চিত্র ইতিহাসের জীবন্ত কিংবদন্তী তিনি। তার সেই বাকা চাহনি আজো বহু তরুণের ঘুম কেড়ে নেয়। অভিনয় থেকে অবসর নেয়ার পর থেকেই মিডিয়া থেকে নিজেকে আড়াল করে রেখেছিল কিংবদন্তী এই অভিনেত্রী।

সুচিত্রা সেন ১৯২৯ সালের ৬ এপ্রিল পাবনার এক সম্ভ্রান্ত হিন্দু পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। বাবা করুণাময় দাশগুপ্ত এবং মায়ের নাম ইন্দিরা দাশগুপ্ত। শৈশবে তার নাম রমা দাশগুপ্ত ছিল। রমা ছিলেন সংসারের পঞ্চম সন্তান ও তৃতীয় কন্যা। ১৯৪৭ সনে কলকাতায় দিবানাথ সেনের সঙ্গে বিয়ে হয় তার। শ্বশুরবাড়ি থেকেই তার নামের সঙ্গে যুক্ত হয় ‘সেন’ উপাধি। রমা দাশগুপ্ত হয়ে যান রমা সেন।

উত্তম কুমারের সঙ্গে জুটি বেঁধে তার অভিনীত চলচ্চিত্রগুলো আজও বাঙালির হৃদয়ে অমলিম। সুচিত্রা অভিনীত উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রের মধ্যে রয়েছে: শাপমোচন, সাগরিকা, পথে হলো দেরি, দ্বীপ জেলে যাই, সবার ওপরে, সাড়ে চুয়াত্তর, সাত পাকে বাঁধা, দত্তা, গৃহদাহ এবং রাজলক্ষ্মী-শ্রীকান্ত ইত্যাদি।