গাজীপুরে অবরোধকারীদের আগুনে মা-মেয়ের মৃত্যু

বার্তাবাংলা রিপোর্ট :: নির্বাচনের তফসিল বাতিল এবং নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে বুধবার ১৮ দলের ডাকা টানা তৃতীয় দফার ১৪৪ ঘণ্টার অবরোধের ৫ম দিনে গাজীপুরে অবরোধকারীদের আগুনে দগ্ধ হয়েছে কাভার্ডভ্যান আরোহী মা-মেয়ে। এ সময় আগুনে ঝলসে যায় একই পরিবারের বাবা ও শিশু সন্তানের দেহ। এদিকে, সাতক্ষীরায় শিবিরের হামলায় আহত এক আওয়ামী লীগ নেতা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকালে মারা গেছেন।

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় যানবাহনে অগ্নিসংযোগ, ভাঙচুর ও ককটেল বিস্ফোরণের করেছে জামাত-শিবির। নাশকতার আশঙ্কায় রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে টহল দিচ্ছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের গ্রামের বাড়িতে সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি এসকে সিনহার আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

রাজশাহীতে পুলিশের সঙ্গে জামাত ও বিএনপি নেতাকর্মীদের দফায় দফায় ১০টি পয়েন্টে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় গুলিবিদ্ধসহ কমপক্ষে অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

খুলনার সোনাডাঙ্গা মডেল থানার সামনে সকালে বিক্ষোভ মিছিল থেকে পুলিশকে লক্ষ্য করে বোমা ছোড়ে শিবিরকর্মীরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করলে ১৫ জন আহত হয়।

সিলেটতে পুলিশবহনকারী ২টি গাড়িতে আগুন দিয়েছে শিবির নেতাকর্মীরা। আগুনে একটি লেগুনা (হিউম্যান হলার) ও একটি অটো টেম্পু ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পরে পুলিশ ধাওয়া করে শিবির নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

সিরাজগঞ্জে অবরোধ ও হরতালের সমর্থনে মিছিল বের করে জামাত-শিবির। এ সময় সায়দাবাদ এলাকায় ৩টি পণ্যবাহী ট্রাকে আগুন দেয়ার পাশাপাশি ১০টি গাড়ি ভাঙচুর করে তারা।

সিরাজগঞ্জ-রায়গঞ্জ সড়কের হাজিবাড়ি ও সিরাগঞ্জ-কাজিপুর সড়কের ফকিরতলা বেইলি ব্রিজের পাটাতন খুলে ফেলে অবরোধকারীরা।

নড়াইলের ডুমুরতলা এলাকায় জামাত-শিবিরের নেতাকর্মীরা সড়ক অবরোধ করলে পুলিশ তাদের সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে। এ সময় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে এক সদর থানার ওসিসহ আহত হয় ২০ জন। পরে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা পুলিশের একটি পিকআপ ভ্যানে আগুন ধরিয়ে দেয়।

এছাড়া সংঘর্ষ, সড়ক অবরোধ, যানবাহনে আগুন ও গাড়ি ভাঙচুরের মধ্য দিয়ে নারায়ণগঞ্জ, কুষ্টিয়া, সিরাজগঞ্জ, পিরোজপুরসহ দেশের অন্যান্য জায়গায় ১৮ দলের ডাকা অবরোধ চলছে।

এদিকে, অবরোধের মধ্যে ডাকা হরতালের ৩য় দিনে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় সহিংসতা চালায় জামাত-শিবিরের নেতাকর্মীরা। অবরোধের কারণে সংখ্যায় কম হলেও রাজধানীতে সব ধরনের যানবাহন চলালচ করছে। তবে দূরপাল্লার যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

এছাড়া, নাশকতা এড়াতে নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান নিয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা।