পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের আন্দোলন ১৫ দিন স্থগিত

বার্তাবাংলা ডেস্ক ::   দুই দফা দাবিতে আন্দোলনরত পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা সরকারের পক্ষ থেকে দাবি পূরণের আশ্বাস পাওয়ার পর আন্দোলন ১৫ দিনের জন্য স্থগিত করেছে।

চার দিন ধরে বিক্ষোভ, অবরোধ ও ভাংচুরের পর আজ সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে সরকারের সঙ্গে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন সংগঠনের নেতাদের বৈঠকের পর বাংলাদেশ কারিগরি ছাত্র পরিষদের আহ্বায়ক জাকির হোসেন সাগর এই ঘোষণা দেন।

সাগর বলেন, আমরা ১৫ দিন সময় দিয়েছি। এর মধ্যে তারা আমাদের সব দাবি পূরণ করবেন বলে কথা দিয়েছেন। এজন্য আমরা ১৫ দিনের জন্য আন্দোলন কর্মসূচি স্থগিত করছি।

তিনি বলেন, কারিগরি শিক্ষার্থীদের বৃত্তির পরিমাণ বাড়ানো, ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের চাকরির ক্ষেত্রে পদোন্নতি এবং ‘ইঞ্জিনিয়ার’ শব্দের সংজ্ঞা নতুন করে নির্ধারণ করার বিষয়ে তাদের দাবি পূরণের আশ্বাস দেয়া হয়েছে বৈঠকে।

এর আগে পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে পাস করা শিক্ষার্থীরা চাকরিতে যোগদানের সময় সুপারভাইজার নন, উপসহকারী প্রকৌশলী হিসেবে বিবেচিত হবেন বলে জানানো হয়। সোমবার শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের যৌথ সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়েছে।

গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এ যৌথ সভা শেষে শিক্ষা সচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী ও গৃহায়ণ সচিব খোন্দকার শওকত হোসেন সাংবাদিকদের সভার সিদ্ধান্তের কথা জানান।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, পলিটেকনিকের শিক্ষার্থীরা ডিপ্লোমা প্রকৌশলী হিসেবেই বিবেচিত হবেন। এ বিষয়ে কয়েক দিনের মধ্যেই গেজেট প্রকাশ করা হবে।

গৃহায়ণ সচিব খোন্দকার শওকত হোসেন বলেন, একটা ভুল ধারণা থেকে উদ্ভূত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। ইতিমধ্যে ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের আমরা ডিপ্লোমা প্রকৌশলী হিসেবেই বিবেচনার সিদ্ধান্ত নিয়েছি এবং সবাইকে বলতে চাই কোনোভাবেই আমরা সুপারভাইজার পদ তৈরি করিনি। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলতে চাই, চাকরিতে যোগদানের সময় তাদের পদ হবে উপসহকারী প্রকৌশলী।

শিক্ষাসচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী বলেন, আশা করি শিক্ষার্থীরা এখন তাদের আন্দোলন প্রত্যাহার করবেন। তারা ডিপ্লোমা প্রকৌশলী হিসেবেই বিবেচিত হবেন।

তিনি আরো বলেন, আন্দোলনের কারণে শিক্ষার্থীরা যেসব পরীক্ষা বর্জন করেছেন সে বিষয়ে দ্রুতই সিদ্ধান্ত হবে।

সভায় উপস্থিত ইনস্টিটিউট অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্সের সাধারণ সম্পাদক শামসুর রহমান বলেন, সিদ্ধান্ত হলেও দীর্ঘদিন ধরে গেজেট প্রকাশিত না হওয়ায় এ সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। মূলত অবিশ্বাস থেকে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। বিকেলে ছাত্রদের সঙ্গে শিক্ষাসচিবদের বৈঠকের কথা রয়েছে।

প্রকৌশলীর সংজ্ঞায় ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের অন্তর্ভুক্ত করে ২০০৮ সালের একটি গেজেট সংশোধন এবং ছাত্রছাত্রীদের বৃত্তি ও প্রশিক্ষণ ভাতা বাড়ানোর দাবিতে গত কয়েকদিন ধরেই দেশব্যাপী আন্দোলন চালিয়ে আসছেন পলিটেকনিকের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা।