মৌলভীবাজারে কেরামত পরিবারের নান্না আর নেই

এস এ চৌধুরী,মৌলভীবাজার :: মৌলভীবাজারে কেরামত পরিবারের সাবেক এমএনএ পুত্র হাজী আফসার সালেহ কেরামত নান্না (৫৩) আর নেই। জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার ভানুগাছ পৌর বাজার বণিক সমিতির সভাপতি ও কমলগঞ্জ পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী আফসার সালেহ কেরামত নান্না গতকাল (রোববার) ভোর রাত ৩.৪৫ মিনিটের সময় ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহে——–রাজেউন)। তিনি দীর্ঘদিন দুরারোগ্য রোগে ভোগছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি মা, স্ত্রী, ২ ভাই, ১ বোন, ৩ ছেলে সহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। রোববার রাত সাড়ে ৮টায় স্থানীয় সফাত আলী সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসা মাঠে মরহুমের নামাজের জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। বিপুল সংখ্যক মুসল্লীদের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত জানাযার নামাজের পূর্বে শোক প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন,  জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ মো: আব্দুস শহীদ এমপি, কমলগঞ্জ সদর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া শফি, মরহুমের পরিবারের পক্ষে বিশিষ্ট নাট্যাভিনেতা আলহাজ্ব জাকারিয়া হাবিব বিপ্লব ও মরহুমের ছেলে ফাহাদ সালেহ কেরামত প্রমুখ। জানাযার নামাজ শেষে রোববার রাতেই নিজ পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।
উল্লেখ্য, মরহুম আফসার সালেহ কেরামত নান্নার পিতা মরহুম আলহাজ্ব মুহিবুর রহমান চাষী  (চেরাগ মিয়া) সাবেক এমএনএ, সাবেক ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান, সাবেক কমলগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান এবং কমলগঞ্জ পৌরসভার প্রথম নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলেন। মরহুম আলহাজ্ব মুহিবুর রহমান চাষীর সন্তানদের মধ্যে প্রথম পুত্র মরহুম আফসার সালেহ কেরামত নান্না।
সাবেক এমএনএ, দানবীর মুহিবুর রহমানের বড় ছেলে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও আওয়ামীলীগ নেতা হাজী আফসার সালেহ কেরামত নান্নার মৃত্যুতে ভানুগাছ পৌর বাজার বণিক সমিতির আহবানে রোববার রাত ৭টা থেকে ৯টা পর্যন্ত ভানুগাছ বাজারের সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে শোক পালন করে কেরামত পরিবারের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করা হয়।
স্বনামধন্য কেরামত পরিবারের সন্তান হাজী আফসার সালেহ কেরামত নান্নার অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন, জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ উপাধ্যক্ষ মো: আব্দুস শহীদ এমপি, কমলগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি এম, মোসাদ্দেক আহমদ মানিক, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক রফিকুর রহমান, পৌর আওয়ামীলীগ সভাপতি মিফতাউল ইসলাম উপরু, কমলগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আবু ইব্রাহীম জমসেদ, কমলগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া শফি, ভানুগাছ বাজার পৌর বণিক সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মামুনুর রশীদ, সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ মখলিছুর রহমান, উপজেলা বিএনপি সভাপতি সৈয়দ সালেহ আহমদ, বিএনপির মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সাবেক সহসভাপতি, কমলগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি, ১৯৭১ সনের স্বাধীনতা সংগ্রাম কমিটির আহবায়ক, শমশেরনগর ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক (বর্তমান) ও কেরামত পরিবারের আত্মীয় মোহাম্মদ আব্দুল বারী চৌধুরী, উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি দুরুদ আলী, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি আনোয়ার হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক আলহাজ্ব জাকারিয়া হাবিব বিপ্লব, পৌর যুবলীগের সভাপতি জুয়েল আহমদ, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সানোয়ার হোসেন, লেখক-গবেষক আহমদ সিরাজ, সাংবাদিক প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ, সাংবাদিক এস এ চৌধুরী, কমলগঞ্জ সুহৃদ সমাবেশ সভাপতি শাব্বির এলাহী, সম্পাদক পিন্টু দেবনাথ, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি শংকর লাল সাহা, সাধারণ সম্পাদক মধুসুদন পাল, পৌর কাউন্সিলর আশরাফুল হক বদরুল প্রমুখ।