মুক্তিযুদ্ধে স্বজনহারা পরিবারের দাবি যুদ্ধাপরাধীদের বিচার

বার্তাবাংলা রিপোর্ট :: জনভোগান্তি কমিয়ে উন্নত নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করতে দেয়া নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি রক্ষা করবে আওয়ামী লীগ সরকার। স্বাধীনতা যুদ্ধে নির্যাতনের শিকার পরিবার ও জাতির দাবি পূরণ করতেই যুদ্ধাপরাধীদের বিচারকাজ শেষ করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

১৯৭২ সালে বাংলাদেশের ‘স্বাধীনতার নায়ক বঙ্গবন্ধু’ শীর্ষক ডকুমেন্টারির অংশ হিসেবে দেশের সমসাময়িক পরিস্থিতি, সরকারের নানা অবদান, রাজনীতি এবং আসছে নির্বাচন সম্পর্কে বৃটিশ সাংবাদিক ডেভিড ফ্রস্ট শেখ হাসিনার সাক্ষাৎকার নেন। শুক্রবার মাঝরাতে কাতারভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আল-জাজিরায় এক ঘণ্টার সাক্ষাৎকারটি প্রচারিত হয়।

আন্তর্জাতিক খ্যাতিমান সাংবাদিক ডেভিড গত ১০ থেকে ১২ জুন বাংলাদেশ সফর করে শেখ হাসিনার সাক্ষাতকার ধারণ করেন। এতে প্রধানমন্ত্রীকে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর নারী হিসেবে উল্লেখ করা হয়। তথ্যচিত্রে বাংলাদেশের জন্মলগ্ন থেকে বর্তমান অবস্থান সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরেন ডেভিড ফ্রস্ট। এ সময় দুর্নীতি ও এর প্রতিকার নিয়ে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

এছাড়া তথ্যচিত্রে জলবায়ু বিষয়ক সমস্যাগুলোর কথাও তুলে ধরা হয়। আর আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এ সমস্যা সমাধানে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান শেখ হাসিনা। এ সময় দেশের বর্তমান অবস্থানও তুলে ধরেন তিনি।

সাক্ষাৎকারে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার নিয়েও কথা বলেন শেখ হাসিনা। এটি একাত্তরে স্বামী-সন্তান হারানো পরিবারগুলোর দাবি বলে জানান তিনি।

‘আপনি হয়ত শুনে থাকবেন যে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার বশে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করা হচ্ছে, এটা সত্যি নয়। মুক্তিযুদ্ধে যারা স্বজন হারিয়েছেন এ বিচার তাদের দাবি। এ বিচার জনগণের কাছে আমাদের অঙ্গীকার, এই বিচার না হওয়া জাতির জন্য অভিশাপ।’—বলেন প্রধানমন্ত্রী।

আগামী নির্বাচন নিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, জনগণ চাইলে আওয়ামী লীগ সরকার থাকবে, নয়তো চলে যাবে।

এছাড়া সাক্ষাৎকারে গণতন্ত্র রক্ষার পাশাপাশি সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ এবং দুর্নীতিমুক্ত দেশ গড়তে আওয়ামী লীগ ও বর্তমান সরকারের ভূমিকা নিয়েও আলোচনা করা হয়।

বৃটেনের ৮ প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎকার নেয়ার রেকর্ডধারী খ্যাতিমান এই সাংবাদিকের বৈচিত্রময় কর্মজীবনের শেষ সাক্ষাৎকার ছিল এটি।