রাজধানীতে মিছিল-ককটেল, আটক ১২

বার্তাবাংলা ডেস্ক :: বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনার মধ্য দিয়ে চলছে জামায়াতের ডাকা টানা ৪৮ ঘণ্টার হরতাল। রাজধানীতে এ পর্যন্ত ১২ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

হরতালের শুরুতে মিরপুরে মিছিল করেছে জামায়াত-শিবিরের কর্মীরা। এসময় তারা কয়েকটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায়।

পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ‘পল্লবীর কালসী রোড়ে ভোর ৬টার দিকে শিবিরকর্মীরা মিছিল বের করে। এসময় কয়েকটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায়। পুলিশ ধাওয়া দিয়ে তিন জনকে আটক করেছে।’

ভোর ৫টার দিকে মগবাজার মোড় থেকে শিবির সন্দেহে তিন জনকে আটক করে রমনা থানা পুলিশ।

রমনা থানার ওসি মশিউর রহমান বলেন, ‘পিকেটার সন্দেহে মগবাজার মোড় থেকে তিন জনকে আটক করা হয়েছে।’

ভোর ৬টার দিকে নিউমার্কেট থানার আজিমপুরে হরতাল সমর্থকরা মিছিল বের করে। এসময় চার থেকে পাঁচটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।

যাত্রাবাড়ীতে মিছিল করার সময় তিন জনকে আটক করেছে পুলিশ।

যাত্রাবাড়ী থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘যাত্রাবাড়ী এলাকার পরিস্থিতি শান্ত। আটকের ঘটনা আমার জানা নেই।’

সকাল সাড়ে ৭টার দিকে শান্তিনগর এলাকায় পেট্রোল দিয়ে বাসে আগুন দেয়ার সময় এক হরতাল সমর্থককে হাতেনাতে আটক করেছে পল্টন থানা পুলিশ।

পল্টন থানার ওসি সরোয়ার আলম  বলেন, ‘পেট্রোল দিয়ে বাসে আগুন দেয়ার সময় এক হরতাল সমর্থককে আটক করা হয়েছে। তাকে পল্টন থানা হেফাজতে নেয়া হয়েছে।’

সকাল ৮টার দিকে দক্ষিণ বনশ্রী এলাকায় মিছিল বের করার চেষ্টাকালে দুই জনকে আটক করেছে খিলগাঁও থানা পুলিশ।

খিলগাঁও থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘আটক দুই জনকে থানায় আনা হয়েছে। ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে তাদের সাজা দেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।’

এছাড়া রাজধানীর বাড্ডা ও মহাখালীসহ বিভিন্ন স্থানে ঝটিকা মিছিল করেছে হরতাল সমর্থকরা।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত রাজধানীতে বড় ধরনের কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। নাশকতা এড়াতে রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্টে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর বিপুল পরিমান সদস্য মোতায়েন রয়েছে।

উল্লেখ্য, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল কাদের মোল্লাকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

মঙ্গলবার এ আদেশের পর টানা ৪৮ ঘণ্টার হরতাল আহ্বান করে জামায়াত।