দিল্লিতে চলন্ত বাসে গণধর্ষণের ঘটনায় ৪ জনের মৃত্যুদণ্ড

বার্তাবাংলা ডেস্ক :: ভারতের রাজধানী দিল্লিতে চলন্ত বাসে মেডিকেল ছাত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত চার জনকেই শুক্রবার মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে দেশটি একটি বিশেষ আদালত। ভারতের সংবাদ মাধ্যমগুলো এ খবর জানিয়েছে।

মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত চার জন হলো: মুকেশ, বিনয়, অক্ষয় ও পবন। তাদের সবার বয়সই ১৯ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে।

গত মঙ্গলবার অভিযুক্ত ৪ জনকে দোষী সাব্যস্ত করে দিল্লির একটি আদালত। তাদের বিরুদ্ধে আনা ধর্ষণ ও হত্যাসহ ১৩টি অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। তারপর বুধবার তাদের দণ্ড ঘোষণা করার কথা থাকলেও শুক্রবার রায়ের দিন ঠিক দেশটির আদালত।

মেডিকেল ছাত্রীটি নিহত হওয়ার ঘটনায় দায়ের করা মামলার ৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হলেও একজন আত্মহত্যা করেছে অপর একজন কিশোর বলে সংশোধানাগারে রাখা হয়েছে।

এর আগে ওই চারজন আদালতে হত্যা এবং ধষর্ণ অভিযোগ অস্বীকার করে।

এদিকে ধর্ষণের সঙ্গে সম্পৃক্ততার প্রমাণ পাওয়া এক কিশোরকে গত মাসে তিন বছরের জন্য সংশোধানাগারে পাঠানো হয়েছে। অপরাধ কর্মের সময় তার বয়স ছিল ১৭ বছর।

পঞ্চম অভিযুক্ত ব্যক্তি, রাম সিং মার্চে কারাগারে আত্মহত্যা করে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

রাম সিংয়ের পরিবারের দাবি তাকে হত্যা করা হয়েছে।

টানা ১২ দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ই করে গতবছর ২৯ ডিসেম্বর শনিবার ভোরে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান মেয়েটি।

মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ডা. কেলভিন ল বলেন, শনিবার স্থানীয় সময় ভোর ৪টা ৪৫ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় পৌনে ৩টা) বর্বরতম নির্যাতনের শিকার ওই তরুণী মারা যান।

উল্লেখ্য, গত ১৬ ডিসেম্বর পাবলিক ট্রান্সপোর্টে ভ্রমণরত ২৩ বছর বয়সী ওই ডেন্টাল ছাত্রীকে গণধর্ষণ করে বাসের চালকসহ ৬ দুর্বৃত্ত। এ সময় সঙ্গে থাকা ওই তরুণীর বন্ধুকে প্রচণ্ড মারধর করে দুর্বৃত্তরা। পরে তাদের দুজনকে চলন্ত বাস থেকে ফেলে দেয়া হয়।