লক্ষ্মীপুরে সংঘর্ষে যুবদল নেতাসহ আহত ১০

বার্তাবাংলা রিপোর্ট :: রামগঞ্জ উপজেলায় নৌকা ছাড়াকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে যুবদল নেতাসহ ১০ জন আহত হয়েছে।

শুক্রবার রাতে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
আহতরা হলেন-ইউপি যুবদলের সহ-সভাপতি মোতালেব হোসেন (৪৫), ছাত্রদলের সাংগঠনক সম্পাদক ওমর ফারুক (২৮), মহিন উদ্দিন (৩৫), আ. রহিম (২৪), মো. শরীফ হোসেন (১৮), মফিজ উল্যাহ (৩০), মাসুদ আলম (২৭), মহিন (২২)।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানায়, শুক্রবার সন্ধ্যায় দেহলা গ্রামের মিজান ও সাদ্দামসহ ৪ বন্ধু মোতালেব হোসেনের মৎস্য খামারে নৌকায় বসে আড্ডা দিচ্ছিল। এ সময় দেবনগর গ্রামের ৪ বখাটে ওই ৪ জনকে নামিয়ে নিজেরা নৌকা ছড়ার চেষ্টা করে। এ নিয়ে উভয় গ্রুপের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে দেবনগর গ্রামের সজিব-মহিনের ভাড়াটে সন্ত্রাসী তোফাজ্জল হোসেন, ইলিয়াছ, নুর হোসেনসহ ১০/১২ জন সন্ত্রাসী গ্রুপ আথাকরা বাজারের বিদ্যুৎ সংযোগ ও জেনারেটরের লাইন বিচ্ছিন্ন করে অতর্কিত হামলা চালায়। এতে যুবদল, ছাত্রদলের নেতাসহ কয়েকজন আহত হলে ব্যবসায়ী ও গ্রামবাসী হামলাকারীদের প্রতিরোধ করলে সংঘর্ষ বাধে। এতে অন্তত ১০ জন আহত হয়।
তাদের মাইজদী জেনারেল হাসপাতাল ও রামগঞ্জ সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান বাহার বলেন, ‘নৌকা ছাড়াকে কেন্দ্র করে বাকবিতণ্ডা হলেও পরবর্তীতে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীরা রাজনীতিক ফায়দা হাসিল করতে বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের উপর হামলা করে।’
রামগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মঞ্জুরুল হক আকন্দ বলেন, ‘খবর পাওয়া মাত্রই পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। শনিবার সকাল সাড়ে ৮টায় পর্যন্ত কোনো অভিযোগ দায়ের হয়নি।’